corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে থমকে ট্রেন, চরম আর্থিক সমস্যায় বাঁকুড়া দামোদর রিভার রেললাইনের কমিশন এজেন্টরা

লকডাউনে থমকে ট্রেন, চরম আর্থিক সমস্যায় বাঁকুড়া দামোদর রিভার রেললাইনের কমিশন এজেন্টরা

রেলের টিকিট বিক্রি করেই সংসার চালানো বিডিআর রেলপথের কমিশন এজেন্টরা আপাতত কর্মহীন হয়ে দিশেহারা

  • Share this:

#বর্ধমান: লকডাউনে দেশ জুড়ে বন্ধ যাত্রী বাহী ট্রেন চলাচল। প্রায় এক মাস ধরে স্টেশনে স্টেশনে থমকে রয়েছে অসংখ্য ট্রেন। আর এতেই চূড়ান্ত সমস্যায় পড়েছেন রেলের এক শ্রেনীর কর্মীরা।

রেলের টিকিট বিক্রি করেই সংসার চালানো বিডিআর রেলপথের এই কমিশন এজেন্টরা আপাতত কর্মহীন হয়ে দিশেহারা। বাঁকুড়া দামোদর রিভার রেলওয়ে রাজ্যের ঐতিহ্যবাহী রেলপথগুলির মধ্যে অন্যতম। একসময় এই রেলপথ ছিল ন্যারোগেজ। পরে বন্ধ হয়ে যায় এই রেলপথে ট্রেন চলাচল। গত দশকে এই রেলপথ ন্যারোগেজ থেকে ব্রডগেজে রূপান্তরিত হয়ে ফের ট্রেন চলাচল শুরু হয়। বাঁকুড়া মশাগ্রাম এই রেলপথে বর্তমানে বৈদ্যুতীকরনের কাজ চলছে। গত দেড় দশকে এই রেলপথে বৃদ্ধি পেয়েছে যাত্রীবাহী ট্রেনের সংখ্যাও। কিন্তু দিন বদল হয়নি ওই রেলপথে থাকা ৩১ টি স্টেশনে নিযুক্ত কমিশন এজেন্টদের। স্টেশনগুলিতে এই এজেন্টদের কাঁধেই থাকে রেলের টিকিট বিক্রি থেকে শুরু করে প্লাটফর্ম পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা ও রেলের সম্পত্তি দেখভাল করার দায়িত্ব। টিকিট বিক্রির অঙ্কের একটা নির্দিষ্ট শতাংশ হারে কমিশন পান এই এজেন্টরা। বিডিআর রেলপথের অধিকাংশ স্টেশনে যাত্রী সংখ্যা হাতে গোনা হওয়ায় কমিশনের অঙ্কও হয় অত্যন্ত কম। সামান্য সেই আয় দিয়েই চলে কমিশন এজেন্টদের সংসার।

লকডাউনে গত এক মাস ধরে বন্ধ ট্রেন চলাচল। ফলে বন্ধ টিকিট বিক্রিও। ফলে এক মাস ধরে বন্ধ কমিশন এজেন্টদের রুজি রোজগারও। স্বাভাবিক ভাবেই এখন চূড়ান্ত অসুবিধার মধ্যে দিন গুজরান করতে বাধ্য হচ্ছেন এই কমিশন এজেন্টরা। রেলের তরফে প্লাটফর্মে থাকা ভিক্ষুকদেরও ত্রান সাহায্য মিলছে কিন্তু রেলের নিজস্ব এই কমিশন এজেন্টদের প্রতি ন্যুনতম মানবিক দৃষ্টি দেয়নি রেল কর্তৃপক্ষ। কমিশন এজেন্টদের দাবি এই লকডাউনের সময়ে যতদিন ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকছে ততদিন অন্তত তাদের প্রতি একটু মানবিক হোক রেল কর্তৃপক্ষ।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: April 25, 2020, 1:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर