‘ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছে বিজেপি’, অভিযোগ মমতার

‘ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছে বিজেপি’, অভিযোগ মমতার
File Picture

গেরুয়া শিবিরকে নিশানা করে নজিরবিহীন আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

  • Share this:

#বাঁকুড়া: হিন্দু মুসলিম সাম্প্রদায়িক তাস খেলে বাংলাকে ভাগ করার চক্রান্ত করছে বিজেপি। রামনবমীর মতো ধর্মীয় উৎসবকে হাতিয়ার করে তাতে চড়ানো হচ্ছে রাজনীতির রং। গেরুয়া শিবিরকে নিশানা করে নজিরবিহীন আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। একইসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, বাংলার বিরুদ্ধে এই রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রে সামিল হয়েছে সিপিএমও। বিজেপি-সিপিএম এক হয়ে বিভেদের রাজনীতি করছে। সরকার সবদিকে নজর রাখছে বলে হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

উত্তরপ্রদেশে রেকর্ড জয়ের পর বিজেপি-র মিশন বাংলা। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে নজিরবিহীন ধর্মীয় প্রচার। যার সরাসরি বহিপ্রকাশ রামনবমীর দিন অস্ত্র হাতে মিছিল। কলকাতা তো বটেই রাজ্য জুড়ে। কেন রামনবমীর মতো এই ধর্মীয় উৎসবকে নিজেদের শক্তি পরীক্ষার দিন হিসেবে বেছে নিল গেরুয়া শিবির? এই উ‍ৎসব কি শুধুই নির্ভেজাল ধর্ম পালন? নাকি এর পিছনে অন্য কোনও সমীকরণ রয়েছে?

এই নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘রামনবমীর সঙ্গে বিজেপি-র কোনও সম্পর্ক নেই। রামনবমী ধর্মীয় উৎসব। একে রাজনীতির রং লাগাচ্ছে বিজেপি। দেশভাগের চক্রান্ত করছে বিজেপি। আবার দলের মিছিলে ঠাকুরের নাম করছে। ধর্মীয় ভাবাবেগে সুড়সুড়ি দেবেন না।’

রাজ্য জুড়ে এদিনের মিছিলে কারা সংগঠিত করল? কাদের দেখা গেল? বিজেপি-র দলীয় পতাকা হয়ত মিছিলে দেখা গেল না। কিন্তু দিলীপ ঘোষের মতো নেতারাই বুঝিয়ে দিলেন রামনবমীর মিছিল আসলে কাদের আজেন্ডা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চ্যালেঞ্জ প্রয়োজনে বিজেপি তাদের প্রতীক বদল করুক। তিনি বলেন, ‘দলীয় পতাকায় ওং লাগিয়ে প্রচার করছে...ক্ষমতা থাকলে নির্বাচন কমিশনের কাছ থেকে ওং প্রতীক আনুক।’

মমতার অভিযোগ, তাঁর সরকারে বিরুদ্ধে লাগাতার অপপ্রচার চলছে। চক্রান্তে হাতে হাত মিলিয়েছে বিজেপি-সিপিএম। বিরোধীদের কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘বিজেপি- কোলে সিপিএম দোলে। দিনে সিপিএম। রাতে বিজেপি। দক্ষিণেশ্বরে সন্ধ্যারতি বন্ধ করে দিয়েছি বলে মিথ্যা টুইট করেছিলেন এক মন্ত্রী ৷’

মুখ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি, ‘কোথায় কী হচ্ছে, সব খবর নিচ্ছি ৷ দাঙ্গার সঙ্গে কোনওরকম আপোস করবে না তাঁর সরকার।’

First published: 07:02:32 PM Apr 05, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर