Home /News /south-bengal /
Dead Body Found || রথ তৈরির জন্য কাগজ কিনতে বেরিয়েছিল শিশুটি, তারপরের ঘটনা শিউরে ওঠার মতো!

Dead Body Found || রথ তৈরির জন্য কাগজ কিনতে বেরিয়েছিল শিশুটি, তারপরের ঘটনা শিউরে ওঠার মতো!

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

Dead Body Found || শুক্রবার সকালে রথ তৈরি করার জন্য বাড়ি থেকে বেড়িয়ে আর বাড়ি ফেরেনি খড়গ্রাম থানার কেশিয়াডাঙ্গা মহম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা ওই শিশু।

  • Share this:

     চারদিন নিখোঁজ থাকার পর বাঁশ বাগানের মধ্যে এক শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য খড়গ্রামে। মৃত শিশুর নাম জয় দাস (১১)। ঘটনাটি ঘটেছে খড়গ্রাম থানার কেশিয়াডাঙ্গা মহম্মদপুর গ্রামে। সোমবার সকালে গ্রামের একটি বাঁশ বাগান থেকে উদ্ধার হয় ওই শিশুর মৃতদেহ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। পরিবারের অভিযোগ খুন করা হয়েছে। শিশুর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে দোষীদের শাস্তির আশ্বাস দেন এসডিপিও সাগর রানা।

    আরও পড়ুন : এ যেন পিতৃবিয়োগ! "উনি বলতেন আমার ৩ মেয়ে..." কান্নায় ভেঙে পড়লেন দেবশ্রী রায়

    শুক্রবার সকালে রথ তৈরি করার জন্য বাড়ি থেকে বেড়িয়ে আর বাড়ি ফেরেনি খড়গ্রাম থানার কেশিয়াডাঙ্গা মহম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা ওই শিশু। অনেক খোজাখুজির পর খোঁজ না পাওয়ায় খড়গ্রাম থানায় নিখোজ ডায়েরি দায়ের করে পরিবারের লোকেরা। এরপরেই সোমবার সকালে গ্রামের একটি বাঁশ বাগানের মধ্যে হয় ওই শিশুর মৃতদেহ দেখতে পায় গ্রামের লোকেরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কান্দি মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। ঘটনায় মৃতের পরিবারজুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। পরিবারের অভিযোগ খুন করা হয়েছে জয়কে।

    বাবা নরেন দাস বলেন, "আমার ছেলে রথ তৈরির জন্য কাগজ কিনতে গিয়েছিল কিন্তু তারপর আর ফেরেনি। গ্রামে কারও সঙ্গে আমাদের কোনো শত্রুতা নেই। কে আমার ছেলেকে খুন করল কিছু বুঝতে পারছি না। পুলিশ তদন্ত করে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করুক আমি এটাই চাই।" মৃত শিশুর কাকা সর্বেশ্বর দাস বলেন, "আমার ভাইপো খুব মিশুকে স্বভাবের ছিল। সবার সঙ্গে খুব ভাল করে কথা বলত। রথের দিন সকালে গ্রামের লোকেরাও ওকে রাস্তায় দেখছে। কিন্তু তারপর আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। আমার ভাইপোকে কেউ খুন করে বাঁশবাগানে ফেলে রেখেছিল। পুলিশ তদন্ত করলেও সঠিক তথ্য উঠে আসবে।" প্রতিবেশী আফজাল সেখ বলেন, "এই ঘটনা অত্যন্ত মর্মান্তিক। এইভাবে একটা ফুটফুটে ছেলেকে খুন করে ফেলা হল। আমরা চাই দোষীদের গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তি দেওয়া হোক।"

    Published by:Rachana Majumder
    First published:

    Tags: Death

    পরবর্তী খবর