Home /News /south-bengal /
Chandrakona: জমি বেচে গচ্ছিত রেখেও পাচ্ছেন না টাকা, সমবায় সমিতির গাফিলতিতে আটকে থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত সন্তানের চিকিৎসা!

Chandrakona: জমি বেচে গচ্ছিত রেখেও পাচ্ছেন না টাকা, সমবায় সমিতির গাফিলতিতে আটকে থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত সন্তানের চিকিৎসা!

West Bengal cooperative scam: সূত্রের খবর, কয়েক বছর আগে সমবায় সমিতির তৎকালীন বোর্ড মেম্বাররা সমবায় দপ্তরের টাকা ঋণ দিয়েছিল বেশ কিছু ব্যবসায়ী ও কোল্ডস্টোরেজের মালিকদের।

  • Share this:

    #চন্দ্রকোনা: থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত একমাত্র ছেলের চিকিৎসার জন্য জমি বেচে লক্ষ লক্ষ টাকা জমা রেখে ছিলেন সমবায়ে (Cooperative)। সমবায়ের গাফিলতির ফলে টাকা না পেয়ে চরম বিপাকে চন্দ্রকোনার (Chandrakona) বাসিন্দা মীনা পাল। নিজের গচ্ছিত টাকা ফিরে পাওয়ার জন্য থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত ছেলেকে নিয়ে প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও মিলেনি সুরাহা, টাকা না পেয়ে চরম হতাশায় মীনার পরিবারের সদস্যরা। চরম হয়রানির এই ঘটনা ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা (Chandrakona) ১ নম্বর ধুলিয়াডাঙ্গা গ্রামে।

    আরও পড়ুন- প্যাচপ্যাচে গ্রীষ্মে শরীরের গোপন অংশের যত্ন নেবেন কীভাবে! এক ঝলকে দেখে নিন ছবিতে

    গ্রামের  শ্রীনগর ঠাকুর হাটি (Chandrakona) সমবায় সমিতিতে এক মাত্র ছলে তুহিন পালের চিকিৎসার জন্য কয়েক বছর আগে নিজেদের চাষের জমি বেচে ৮ লক্ষ টাকা জমা রেখেছিলেন মীনা। ভেবেছিলেন ছেলের চিকিৎসার জন্য সমবায় সমিতি থেকে সময়মতো টাকা তুলতে পারবেন। অভিযোগ, সেই ভেবেই নিজের টাকা রেখেও সমবায় সমিতি থেকে ২ বছর ধরে কোনও টাকা তুলতে পারছেন না মীনা পাল। টাকা থেকেও না থাকায় থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত ছেলের চিকিৎসা করাতে হিমশিম খাচ্ছেন পরিবারের সদস্যরা। তাঁদের দাবি, দ্রুত সমবায় কর্তৃপক্ষ তাঁদের গচ্ছিত টাকা ফেরত দিক। এই দাবি নিয়ে বারে বারে সমবায় দপ্তর থেকে শুরু করে জেলা প্রশাসন ও ব্লক প্রশাসনের আধিকারিকদের দ্বারস্থ হয়েও পথ খুঁজে পাচ্ছেন না তাঁরা।

    কিন্তু কেন এই সমস্যা? সূত্রের খবর, কয়েক বছর আগে সমবায় সমিতির তৎকালীন বোর্ড মেম্বাররা সমবায় দপ্তরের টাকা ঋণ দিয়েছিল বেশ কিছু ব্যবসায়ী ও কোল্ডস্টোরেজের মালিকদের। প্রায় কয়েক কোটি টাকার ঋণ দেওয়া হয়েছিল সেই সময়। সমবায় সমিতির সেই কয়েক কোটি টাকা পরিশোধ না করার জন্য সমিতির লাটে ওঠার উপক্রম। আর এর ফলেই নিজেদের গচ্ছিত টাকা না পেয়ে মীনা দেবীর মতো একাধিক মানুষ পড়েছেন সমস্যায়।

    আরও পড়ুন- সকাল শুরু হোক এক কাপ গাঁজা চায়ে! বাড়িতেই কীভাবে তৈরি করবেন এই চা দেখে নিন ছবিতে

    এই নিয়ে বেশ কয়েক বার সমাবায় সমিতি ঘেরাও করে বিক্ষোভও দেখান প্রতারিত গ্রাহকরা। রাজ্যে ক্ষমতায় থাকা শাসক দলই এই সমবায়গুলি পরিচালনা করে। এ বিষয়ে ব্লক সমবায় কৃষি আধিকারিক অর্পিতা চক্রবর্তী বলেন, “জেলাশাসক থেকে শুরু করে সকলকেই বিষয়টি জানানো হয়েছে। আমরা দেখছি কীভাবে দ্রুত টাকা ফেরত দেয়া যায়।” অন্যদিকে, শাসক দলের নেতাদের মদতেই এই আর্থিক দুর্নীতি হয়েছে বলে দাবি করেছে বিজেপি।

    Sukanta Chakraborty

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Chandrakona

    পরবর্তী খবর