দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

খুনের নেশায় মেতে উঠেছিল চেনম্যান, আরও সাতটি খুনের মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে

খুনের নেশায় মেতে উঠেছিল চেনম্যান, আরও সাতটি খুনের মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে
প্রতীকী চিত্র।

পর পর খুন করেও সে এলাকায় আশ্চর্য রকমের স্বাভাবিক থাকত। ঘুণাক্ষরেও কাউকে বুঝতে দেয়নি তাঁর মনে কী চলছে।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: ৬৫ বছরের প্রৌঢ়া থেকে শুরু করে ১৪ বছরের নাবালিকা- রেহাই পায়নি কেউই। বাইরে থেকে শান্ত, নিরীহ দেখতে চেনম্যান খুন করে গিয়েছেছে নির্বিচারে। প্রথম মামলায় তার মৃত্যুদণ্ড ঘোষিত হয়েছে। এর বাইরে আরও চোদ্দটি মামলা রয়েছে সিরিয়াল কিলার  চেনম্যানের বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলার মধ্যে খুনের অভিযোগই রয়েছে আটটি। তার মধ্যে কালনার সিঙের কোনের মামলায় মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা হয়েছে তার। সরাসরি খুনের মামলা রয়েছে আরও সাতটি। এছাড়াও সাতটি খুনের চেষ্টার মামলাও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

এর মধ্যে কালনা আদালতে রয়েছে আরও এগারোটি মামলা। বর্ধমান আদালতে রয়েছে একটি মামলা ও দু'টি মামলা রয়েছে চুঁচুড়া আদালতে।

২০১৩ সাল। বছরের প্রথম দিন কালনা ধাত্রীগ্রামে এক মাঝবয়সি মহিলাকে খুন করে অপারেশন সূচনা হয় চেনম্যানের। ওই বছরের ২৭ জানুয়ারি মন্তেশ্বরে এক বৃদ্ধাকে খুন করে চেনম্যান। সে বছর মার্চ মাসে কালনার এক মহিলাকে খুনের চেষ্টা করেছিল সে। তবে ধরা পড়ার আগে, শেষ এক বছরে তার অপরাধ প্রবণতা মারাত্মক রকমের বেড়ে গিয়েছিল বলে মনে করছে পুলিশ।

২০১৮ সালের  ৪ অক্টোবর কালনা থানার শিবরামপুরে এক গৃহবধূকে চেন দিয়ে পেঁচিয়ে খুন করার চেষ্টা চালায় চেনম্যান। ২০১৯ সালের ২ ফেব্রুয়ারি কালনা থানার উপলতি গ্রামে ৬৫ বছরের এক প্রৌঢ়াকে খুনের চেষ্টা চালায় সে। ২০১৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি এক মহিলাকে খুন করে সে।

সে বছরের পয়লা এপ্রিল কালনা থানার ধর্মডাঙ্গায় এক গৃহবধূকে খুনের চেষ্টা করে চেনম্যান। তার পরদিন ২ এপ্রিল মেমারি থানার বোড়ায় এক গৃহবধূকে খুন করে সে। পরদিন ৩ এপ্রিল মেমারি সাতগাছিয়ায় এক গৃহবধূকে খুন করে সে। পর পর খুন করেও সে এলাকায় আশ্চর্য রকমের স্বাভাবিক থাকত। ঘুণাক্ষরেও কাউকে বুঝতে দেয়নি তাঁর মনে কী চলছে।

২০১৯ সালের ১১ মে পান্ডুয়া থানা এলাকায় এক মহিলাকে খুনের চেষ্টা চালায় সে। ১৬ মে ফের পান্ডুয়া থানার এক মহিলাকে খুনের চেষ্টা চালায় চেনম্যান। ২২ মে কালনা থানার গোয়াড়া মল্লিক পাড়ায় এক গৃহবধূকে বাড়িতে ঢুকে খুন করে চেনম্যান। তার আগে গোয়াড়া বাজারের এক দোকান থেকে লোহার চেন কিনেছিল সে। ২৭  মে মন্তেশ্বর থানা শ্যামনগর গ্রামে এক গৃহবধূকে খুন করে সে। এরপর ৩০ মে কালনা থানার সিঙেয়ের কোনে দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে খুন করে চেনম্যান কামরুজ্জামান। সেই ঘটনায় মৃত্যুদন্ডের সাজা হয়েছে তার।

Published by: Arka Deb
First published: July 7, 2020, 4:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर