• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বিশ্বের তেল উত্তোলন মানচিত্রে জুড়ল অশোকনগর! ৮ম বেসিনের উদ্বোধনে শহরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

বিশ্বের তেল উত্তোলন মানচিত্রে জুড়ল অশোকনগর! ৮ম বেসিনের উদ্বোধনে শহরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

৭০ বছরের খোঁজের বানিজ্যিক সফলতা এল আজ। দেশের পশ্চিম উপকূলে তেলের সন্ধান পাওয়া গেলেও, পূর্ব ভাগে এই প্রথম পেট্রোলিয়াম তেলের বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু হল অশোকনগরে ।

৭০ বছরের খোঁজের বানিজ্যিক সফলতা এল আজ। দেশের পশ্চিম উপকূলে তেলের সন্ধান পাওয়া গেলেও, পূর্ব ভাগে এই প্রথম পেট্রোলিয়াম তেলের বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু হল অশোকনগরে ।

৭০ বছরের খোঁজের বানিজ্যিক সফলতা এল আজ। দেশের পশ্চিম উপকূলে তেলের সন্ধান পাওয়া গেলেও, পূর্ব ভাগে এই প্রথম পেট্রোলিয়াম তেলের বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু হল অশোকনগরে ।

  • Share this:

#অশোকনগর: ৭০ বছরের খোঁজের বানিজ্যিক সফলতা এল আজ। দেশের পশ্চিম উপকূলে তেলের সন্ধান পাওয়া গেলেও, পূর্ব ভাগে এই প্রথম পেট্রোলিয়াম তেলের বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু হল অশোকনগরে । ২০১৮ সাল থেকে উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরের তেল ও গ্যাসের অনুসন্ধান শুরু করে ওএনজিসি। মাস কয়েক আগে সেই তেলের মান পরীক্ষা করে সাফল্য পায় জাতীয় এই সংস্থাটি। আর আজ অশোকনগরে বাইগাছি মৌজায় সেই প্রকল্পকে জাতীর উদ্দেশ্য উৎসর্গ করেন কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান।

এই প্রকল্পের  আশে পাশেই আরও দুটি ব্লকে তেল ও গ্যাসের সন্ধান করা হবে, আজ অশোকনগরে তেলের খনির উদ্বোধন করে জানান কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। তাঁর দাবি, এই প্রকল্প মাধ্যমে বাংলার অর্থনীতিতে বড়সড় পরিবর্তন আসবে। একইসঙ্গে স্থানীয় মানুষের কাজের সুযোগ বাড়বে। অগ্রাধিকার দেওয়া হবে  স্থানীয়দের। এই প্রকল্প বিস্তারের জন্য রাজ্যের জমি নীতি মেনেই প্রয়োজনীয় জমি নেওয়া হবে ঘোষনা প্রধানের।

ইতিমধ্যেই ৪ একর জমি নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে প্রকল্প। ব্যয় হয়ে গিয়ছে ৩৪০০ কোটি টাকা। এই প্রকল্পের  জন্য প্রয়োজন আরও ১২ একর জমি। পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী জানিয়েছে, খনির জন্য খুব বেশী জমির প্রয়োজন নেই। এ দিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন,  এখানে পাওয়া তেলের গুনগত মান বিশ্বের সেরা মানের তেলের সমান।' একইসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, 'পূর্ব ভারতে গঙ্গা ব্রম্ভপুত্র ও দামোদর অববাহিকায় আরও তেল এবং  গ্যাসে অনুসন্ধান করা হবে। আত্মনির্ভর ভারত গড়তে এই প্রকল্প একটি বড় ভূমিকা নেবে বলে মত ধর্মেন্দ্র প্রধানের। তিনি জানান, বর্তমানে দেশকে ৮৫ শতাংশ জ্বালানি তেল আমদানি করতে হয়। এই ভাবে দেশের তেলের ভান্ডার খুঁজে পেলে লাভ হবে দেশের।

অশোকনগরে মাটির তলায় ২২০০ মিটার নিচে রয়েছে তেল। আর তার নিচে ২৩০০ মিটারের তলায় রয়েছে গ্যাস। আপাতত বানিজ্যিক ভাবে তেল উত্তোলন শুরু হলেও, অচিরেই গ্যাসের উত্তোলন শুরু হবে জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। ONGC সূত্রে জানা গিয়েছে, ৭৩৯ বর্গকিলোমিটার এলাকায় তেল ও গ্যাসের ভান্ডার রয়েছে। বেঙ্গল বেসিনে তেল ও গ্যাসের ভান্ডার আবিষ্কার হওয়া সামগ্রিক বাংলার অর্থনীতিতে ব্যাপক উন্নতি হবে। এই বেসিন সোনার বাংলা গড়তে বড় ভূমিকা নেবে বলে মত মন্ত্রীর।

RAJARSHI ROY

Published by:Shubhagata Dey
First published: