Businessman Murder Case: বীরভূমের ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে খুন ডানকুনিতে! জালে ৩

বীরভূমের ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে খুন ডানকুনিতে! জালে ৩

পরিত্যক্ত একটি গাড়ির তদন্তে নেমে বীরভূম জেলার এক ব্যবসায়ী খুনের (Businessman Murder Case) রহস্য উদ্ঘাটন করল বর্ধমানের জামালপুর থানার পুলিশ।

  • Share this:

#ডানকুনি: অপহরণ করে খুন! পরিত্যক্ত একটি গাড়ির তদন্তে নেমে বীরভূম জেলার এক ব্যবসায়ী খুনের  (Businessman Murder Case) রহস্য উদ্ঘাটন করল বর্ধমানের জামালপুর থানার পুলিশ। খুনে জড়িত থাকার সন্দেহে তিনজনকে ডানকুনি থেকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ প্রাথমিকভাবে এই খুনের সঙ্গে তাদের জড়িত থাকার বিষয় জানতে পেরেছে বলে খবর।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৪ অগস্ট বীরভূমের ইলামবাজার থেকে ব্যবসায়ী সামিম হোসেন ৭০ হাজার টাকা-সহ একটি বোলেরো পিক আপ ভ্যান নিয়ে কলকাতার গড়িয়ার উদ্দেশে রওনা হন। বিস্কুট আনতে গিয়েছিলেন তিনি। পিক আপ ভ্যানের চালক ছিলেন বরুণ মুর্মু। পথে ডানকুনির কাছে গিয়ে তাঁরা রাস্তা ভুলে যাওয়ায় ডানকুনি থেকে পথ প্রদর্শক হিসাবে আকতার সেখ নামে একজনকে তাঁদের গাড়িতে তোলেন।

জানা যায়, রাত্রি প্রায় ২ টো নাগাদ তাঁরা গড়িয়ায় পৌঁছন। কিন্তু সেখানে রাত্রি হওয়ায় বিস্কুট না পেয়ে তাঁরা ফের ফিরে আসেন ডানকুনিতে। অভিযোগ, এরপরই আকতার সেখ, কালো ও বাবু তিনজন মিলে সামিম হোসেন এবং বরুণ মুর্মুকে খুন করে ডানকুনির পচাখালে তাঁদের মৃতদেহ ফেলে দেয়।

পুলিশ সূত্রে জানা খবর, জৌগ্রামের কাছে একটি ধাবার পাশ থেকে ওই বোলেরো পিক আপ ভ্যানকে পরিত্যক্ত হিসাবে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ। গাড়ির নম্বর নিয়ে তদন্ত শুরু করে জানতে পারে, গাড়িটি ইলামবাজারের ব্যবসায়ী ইমাম হোসেনের। এর পরই তাঁর বাড়ির লোকজনদের সঙ্গে জামালপুর থানার পুলিশ যোগাযোগ করে। বাড়ির লোকজন জামালপুর থানায় এসে বিস্তারিত জানান এবং জামালপুর থানায় ৮ অগস্ট একটি অপহরণ সংক্রান্ত অভিযোগ দায়ের করেন।

এরপরই পুলিশ ওই ব্যবসায়ীর ফোনের কললিষ্ট দেখে আকতার সেখের হদিশ পায়। তাকে পাকড়াও করে বাকি দুজনকে বুধবার রাতে পুলিশ আটক করে জামালপুর থানায় নিয়ে আসে। সেখানে তিন জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর তাঁরা খুনের ঘটনার কথা কবুল করে। বৃহস্পতিবার তাদের নিয়েই জামালপুর থানার পুলিশ ডানকুনির পচাখালে মৃতদেহ উদ্ধারের কাজে হাত লাগিয়েছে। যদিও এদিন বিকাল পর্যন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়নি বলে জানা গিয়েছে।

Published by:Raima Chakraborty
First published: