• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • ২ নম্বর জাতীয় সড়কে পূর্ব বর্ধমানের পালসিটে তৈরি হচ্ছে আধুনিক বাস-হাব

২ নম্বর জাতীয় সড়কে পূর্ব বর্ধমানের পালসিটে তৈরি হচ্ছে আধুনিক বাস-হাব

বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে পিপিপি মডেলে এই বাস হাব তৈরি করা হচ্ছে। এর ফলে দূরপাল্লার যাত্রীরা দীর্ঘ যাত্রার ধকল এড়িয়ে এই বাস হাবে বিশ্রাম নিতে পারবেন।

বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে পিপিপি মডেলে এই বাস হাব তৈরি করা হচ্ছে। এর ফলে দূরপাল্লার যাত্রীরা দীর্ঘ যাত্রার ধকল এড়িয়ে এই বাস হাবে বিশ্রাম নিতে পারবেন।

বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে পিপিপি মডেলে এই বাস হাব তৈরি করা হচ্ছে। এর ফলে দূরপাল্লার যাত্রীরা দীর্ঘ যাত্রার ধকল এড়িয়ে এই বাস হাবে বিশ্রাম নিতে পারবেন।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমানের পালসিটে ২নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে তৈরি হচ্ছে বাস হাব। এই বাস হাব তৈরি করবে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা। বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে পিপিপি মডেলে এই বাস হাব তৈরি করা হচ্ছে। এর ফলে দূরপাল্লার যাত্রীরা দীর্ঘ যাত্রার ধকল এড়িয়ে এই বাস হাবে বিশ্রাম নিতে পারবেন। এর ফলে একদিকে যেমন সুবিধা হবে যাত্রীদের তেমনই কর্ম সংস্থান হবে অনেকের। সোমবার প্রস্তাবিত সেই বাস হাবের শিলান্যাস হল।

পূর্ব বর্ধমানের মেমারি ২নম্বর জাতীয় সড়কের পালসিট টোল প্লাজার কাছাকাছি জায়গায় তৈরি করা হবে এই বাস হাব। ২ একর জায়গার ওপর আধুনিক এই হাব তৈরিতে উদ্যোগী হয়েছে এসবিএসটিসি। সেখানে পার্কিংয়ের ব্যবস্থা, বিশ্রামাগার, উন্নত মানের শৌচাগার থাকবে। হাবে থাকবে বিভিন্ন ধরনের খাবারের দোকান। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যেই এই হাব চালু করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। তবে কাজ পুরোপুরি শেষ হতে বছর খানেক লাগবে।

অনেকেই দূরপাল্লার বাসে বা চার চাকার গাড়িতে অনেক দূরের পথ পাড়ি দেন। অনেকেরই রাস্তায় বিশ্রাম থেকে শুরু করে খাওয়া-দাওয়া বা শৌচাগারের প্রয়োজন হয়। কিন্তু তেমন পরিকাঠামো না থাকায় সমস্যায় পড়েন অনেকেই।সে কারণে দীর্ঘ দূরত্বের বাস যাত্রায় অনীহা রয়েছে অনেকেরই। দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, সড়ক পথের যাত্রীদের সেই স্বাচ্ছন্দ্যের ব্যবস্থা করে দিতেই এই উন্নত মানের ব্যবস্থা তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে, সেখানে গাড়ি রেখে বিশ্রাম নেওয়া যাবে। চালক-বাসকর্মীদের জন্য থাকবে আলাদা বিশ্রামের জায়গা। বিশ্রাম থেকে শুরু করে জলখাবার, মধ্যাহ্ন আহার সবই করতে পারবেন যাত্রীরা। উন্নত মানের শৌচাগার থাকবে। জেলার বিখ্যাত মিষ্টি থেকে শুরু করে হস্তশিল্প সবেরই দোকান থাকবে এই হাবে। ফলে অনেকের কর্মসংস্থান হবে। আয়ও বাড়বে এসবিএসটিসি-র।

SARADINDU GHOSH

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: