corona virus btn
corona virus btn
Loading

প্রেমিকাকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে, দরজা বন্ধ করে চম্পট দিল প্রেমিক ও মা

প্রেমিকাকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে, দরজা বন্ধ করে চম্পট দিল প্রেমিক ও মা
হাসপাতালে ভর্তি ওই কিশোরী

প্রেমিকাকে বাড়িতে ডেকে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দিল প্রেমিক ও তার মা। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল রঘুনাথগঞ্জের বালিঘাটা এলাকায়।

  • Share this:

#রঘুনাথগঞ্জ: প্রেমিকাকে বাড়িতে ডেকে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দিল প্রেমিক ও তার মা। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল রঘুনাথগঞ্জের বালিঘাটা এলাকায়। অভিযোগ, নবম শ্রেণীর ছাত্রী শম্পা খাতুনের সঙ্গে রবিউলের দীর্ঘদিন ধরে প্রণয়ঘটিত সম্পর্ক। মঙ্গলবার সকালে শম্পাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে এসে দরজা বন্ধ করে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। পরে প্রতিবেশীদের চেষ্টায় উদ্ধার করে জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। ঘটনার পর থেকেই রবিউল ও তার বাড়ির লোকেরা পলাতক। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে রঘুনাথগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। জঙ্গিপুর মহকুমা পুলিশ অফিসার প্রসেনজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। অভিযুক্তরা ঘটনার পরে পলাতক। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।’

কয়েকদিন আগে রবিউলের পরিবারের সঙ্গে শম্পার পরিবারের লোকেরা একসাথে বসে বিয়ে দেওয়ার প্রস্তাব দেয়। যদিও রবিউলের মা প্রথম থেকেই শম্পার সঙ্গে ছেলের বিয়ে দেবেন না বলে বেঁকে বসেছিলেন। অভিযোগ, মঙ্গলবার সকালে রবিউল শম্পাকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপরই রবিউল ও তার মা শম্পার গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। তারপর বাইরের দিক থেকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে পালিয়ে যায়। শম্পার আর্তনাদে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। পেছন দিকে দরজা ভেঙে শম্পাকে উদ্ধার করেন তাঁরা। অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় শম্পাকে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দেহের ৭০ শতাংশ আগুনে পুড়ে গেছে শম্পার। বাদ যায়নি মুখের সামনের অংশ। আক্রান্তের বাবা ডলার শেখ বলেন, ‘কয়েকদিন আগেও ছেলের বাড়ির লোকদের ডেকে পাঠিয়েছিলাম। অনুষ্ঠান করে বিয়ে দেবো বলেছিলাম। তার আগেই এই সর্বনাশ হবে ভাবতে পারিনি। অপরাধীর উপযুক্ত শাস্তির দাবি করছি আমি৷’

PRANAB KUMAR BANERJEE

First published: February 18, 2020, 8:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर