দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজবাড়ি ছেড়ে নতুন বিল্ডিংয়ে উঠে যাওয়ার অপেক্ষায় বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন 

রাজবাড়ি ছেড়ে নতুন বিল্ডিংয়ে উঠে যাওয়ার অপেক্ষায় বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন 

গোলাপবাগের পাঠভবনের কাছাকাছি জায়গায় প্রশাসনিক ভবন উঠে আসায় দুই বিভাগের মধ্যে সমন্বয় আরও সহজ হবে বলে মনে করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আধিকারিকরা।

  • Share this:

#বর্ধমান: নতুন বিল্ডিংয়ে স্থানান্তরের অপেক্ষায় বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কাছে তৈরি হয়েছে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল্ডেন জুবিলি ভবন। ওই ভবন নির্মাণের কাজ কয়েক বছর আগেই সম্পূর্ণ হয়েছে। নির্মাণকারী সংস্থা তা বিশ্ববিদ্যালয়কে হস্তান্তর করলেই সেখানে প্রশাসনিক বিভাগ উঠে যাবে বলে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে। এর ফলে গোলাপবাগের পাঠভবনের কাছাকাছি জায়গায় প্রশাসনিক ভবন উঠে আসায় দুই বিভাগের মধ্যে সমন্বয় আরও সহজ হবে বলে মনে করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আধিকারিকরা।

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মলগ্ন থেকেই বর্ধমান রাজবাড়িতে চলছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন। বিভিন্ন ছাত্রাবাস ও পড়াশোনার বিভিন্ন বিভাগ রয়েছে গোলাপবাগ ক্যাম্পাসে। ২০০৯ সালে রাজ্য হেরিটেজ কমিশন বর্ধমান রাজবাড়িকে হেরিটেজ বিল্ডিং ঘোষণা করে। ঠিক হয় আলাদা জায়গায় উঠে যাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন। রাজবাড়ি সংস্কারের পর তা দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হবে। মিউজিয়াম সহ রাজবাড়ি সাজিয়ে তোলা হবে। লাইট অ্যান্ড সাউন্ডে দর্শকরা উপভোগ করবেন বর্ধমান রাজ কাহিনী। এই কাজের জন্য মোটা অঙ্কের টাকা পায় বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়।

আরও পড়ুন আগামিকাল থেকেই চালু হচ্ছে ৩৯ টাকায় ৯০ মিনিটের গঙ্গা ভ্রমণ!

নার্স কোয়ার্টারের সামনে জলা জমি বুজিয়ে তৈরি হয় সুবিশাল ও সুদৃশ্য গোল্ডেন জুবিলি ভবন। বছর চারেক আগে সেই ভবন তৈরি হলেও এখনও রাজবাড়ি ছাড়েনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গোল্ডেন জুবিলি ভবনকে সামনে রেখে গোলাপবাগে ঢোকার মুখে বিশাল উচ্চতার একটি গেট তৈরি করা হয়েছে৷ ইতিমধ্যেই প্রাচীর দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়েছে বিভিন্ন ছাত্রাবাস একইসঙ্গে তৈরি হয় গোল্ডেন জুবিলি ভবন।

এ ব্যাপারে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিমাইচন্দ্র সাহা জানান, এখনও ওই বিল্ডিং নির্মানকারী সংস্থা হস্তান্তর করেনি। তারই মধ্যে কিছু কিছু বিভাগ সেখানে উঠে গিয়েছে। হস্তান্তর হলেই বিশ্ববিদ্যালয় রাজবাড়ি ছেড়ে দেবে। যত দ্রুত সম্ভব আমরা নতুন বিল্ডিংয়ে প্রশাসনিক ভবন নিয়ে যেতে চাইছি।  বর্ধমান রাজবাড়ি হেরিটেজ বিল্ডিং ঘোষিত হয়েছে আগেই। এই হেরিটেজ বিল্ডিং সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে আবেদন জানানো হয়েছে।

Published by: Pooja Basu
First published: September 30, 2020, 3:16 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर