দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

সংস্কারের অভাবে জীর্ণ বর্ধমান রাজবাড়ি

সংস্কারের অভাবে জীর্ণ বর্ধমান রাজবাড়ি
  • Share this:

#বর্ধমান: বর্ধমানের ঐতিহ্য, শহরবাসীর গর্বের বর্ধমান রাজবাড়ি সংস্কারের অভাবে জীর্ণ। বয়সের ছাপ তার পরতে পরতে। খসে পড়ছে পলেস্তরা। সুদৃশ্য গঠন শৈলী ফুঁড়ে ডালপালা ছড়িয়েছে বট অশ্বত্থ। আগাছায় জঙ্গলে ঢেকেছে তার চারপাশ। বন্ধ ফটক অবলুপ্তির দিন গুনছে। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অবহেলায় সাধের রাজবাড়ি এই করুণ অবস্থায় পৌঁচেছে বলে অভিযোগ উঠছে। নবরূপে সেজে উঠুক এই হেরিটেজ বিল্ডিং- চাইছেন বাসিন্দারা।

বর্ধমান শহর ও তার আশপাশ ঐতিহাসিক স্হাপত্যে ভাস্কর্যে, প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ। তার ওপর শহরের মাঝে রাজবাড়ি। তবু পর্যটন মানচিত্রে জায়গা পাকা করতে পারেনি এই শহর। বাসিন্দারা বলছেন, পর্যটকদের চোখ টানার মতো করে রাজবাড়িকে সাজিয়ে তোলা হয়নি কোনও দিনই। শুরুর দিন থেকে এই রাজবাড়িতেই চলছে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়। সেখানে সাধারনের প্রবেশ নিষেধ। রাজবাড়ি রক্ষণাবক্ষেণের কাজটুকুও বিশ্ববিদ্যালয় সঠিকভাবে করেনি বলে অভিযোগ।

বিশ্ববিদ্যালয় তৈরির জন্য এই বাড়ি রাজ্য সরকারের হাতে তুলে দিয়েছিল রাজপরিবার। অভিযোগ, হেরিটেজের নিয়ম মেনে কোনও দিনই এই বাড়ির সংস্কার করেনি বিশ্ববিদ্যালয়। চুন সুরকির দেওয়ালে ছিল সুদৃশ্য পঙ্কের কাজ। সেসবের অনেক আজ অদৃশ্য। অবহেলায় নিশ্চিহ্ন হওয়ার পথে রাজবাড়ির ঐতিহাসিক প্রতীকও। বাসিন্দারা বলছেন, অবিলম্বে পুরনো গঠনশৈলী অক্ষুন্ন রেখে বিজ্ঞানসম্মতভাবে রাজবাড়ি সংস্কার করা হোক। দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হোক এই ঐতিহাসিক ভবন। সেখানে লাইট অ্যান্ড সাউন্ডে দেখানো হোক জাল প্রতাপচাঁদের কাহিনী, বর্ধমানরাজ ইতিবৃত্ত। তাতে পর্যটনের আলাদা দিগন্ত খুলে যেতেই পারে। তাতে এই রাজবাড়িকে কেন্দ্র করে অনেকে কাজ পাবেন।সঠিক পরিকল্পনা এই শহরের আর্থসামাজিক পরিকাঠামো বদলে দিতে পারে।

২০০৯ সালে রাজ্য হেরিটেজ কমিশন বর্ধমান রাজবাড়িকে হেরিটেজ বিল্ডিং ঘোষনা করে। ঠিক হয় আলাদা জায়গায় উঠে যাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন। রাজবাড়ি সংস্কারের পর তা দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হবে। মিউজিয়াম-সহ রাজবাড়ি সাজিয়ে তোলা হবে। লাইট অ্যান্ড সাউন্ডে দর্শকরা উপভোগ করবেন বর্ধমান রাজ কাহিনী। এই কাজের জন্য মোটা অঙ্কের টাকা পায় বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়। জলা জমি বুজিয়ে তৈরি হয় সুবিশাল ও সুদৃশ্য গোল্ডেন জুবিলি ভবন। বছর চারেক আগে সেই ভবন তৈরি হলেও এখনও রাজবাড়ি ছাড়েনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: September 26, 2020, 4:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर