রাবড়ির সঙ্গে নলেন গুড় মিশিয়ে তৈরি জিভে জল আনা খেলা হবে সন্দেশ!

রাবড়ির সঙ্গে নলেন গুড় মিশিয়ে তৈরি জিভে জল আনা খেলা হবে সন্দেশ!

Burdwan Netaji Mistanna Bhandar selling Khela Hobe Sandesh

রাজনীতির ময়দান ছাড়িয়ে মিষ্টির দোকানের শোকেসে এবার "খেলা হবে"। ভোটে গরম বাংলায় তৈরি 'খেলা হবে' মিষ্টি। পদ্ম বা জোড়া ফুল মিষ্টির মাঝেই জায়গা করে নিয়েছে এই মিষ্টি।

  • Share this:

বর্ধমান: রাজনীতির ময়দান ছাড়িয়ে মিষ্টির দোকানের শোকেসে এবার "খেলা হবে"। ভোটে গরম বাংলায় তৈরি 'খেলা হবে' মিষ্টি। পদ্ম বা জোড়া ফুল মিষ্টির মাঝেই জায়গা করে নিয়েছে এই মিষ্টি। ক্রেতারা সিপিএম, তৃণমূল কিংবা বিজেপি যে, দলেরই সমর্থক হোন না কেন কিনছেন খেলা হবে সন্দেশ। কারণ খেলা হবে স্লোগান ব্যবহার করছেন সব দলই।

নির্বাচনী লড়াই এখন জমে উঠেছে। আর রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী লড়াইয়ে বাক্য ও কু-বাক্যের মহড়ার মাঝেই এবার বাজারে চলে এসেছে খেলা হবে মিষ্টি। রাজনীতির ময়দান কাঁপানো খেলা হবে স্লোগানকে মিষ্টির মধ্যে জায়গা করে দিয়েছেন বর্ধমানের নেতাজী মিষ্টান্ন ভাণ্ডারের কর্ণধার সৌমেন দাস। তৃণমূলের জোড়া ফুল, বিজেপির পদ্মফুল এবং খেলা হবে মিষ্টি নিয়ে এবার বাজার ধরার খেলায় নেমে পড়েছেন মিষ্টান্ন ব্যবসায়ীরাও। ফলে এখন কার্যতই হেঁসেল থেকে বাজার সবই ফুটছে রাজনীতির আঁচে।

সৌমেনবাবু বললেন, "আমরা দেখছি এবারের বিধানসভা নির্বাচনের লড়াই হচ্ছে মূলত তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। তাই তৃণমূলের জোড়া ফুল আর বিজেপির প্রতীক পদ্মফুল মিষ্টি বানিয়েছি আমরা। দুটি মিষ্টির স্বাদও আলাদা। তাদের মাঝেই রয়েছে খেলা হবে মিষ্টি।" জানা গেল, তৃণমূল কংগ্রেসের জোড়া ফুল মিষ্টি তৈরি করা হয়েছে রাবড়ি দিয়ে। দাম প্রতি পিস ১০ টাকা। বিজেপির পদ্মফুল মিষ্টি তৈরি করা হয়েছে খাঁটি নলেন গুড় দিয়ে। তার দাম তৃণমূল কংগ্রেসের জোড়া ফুল মিষ্টির থেকে বেশি।বিজেপির পদ্ম ফুল মিষ্টির দাম প্রতি পিস ১৫ টাকা।

তাহলে খেলা হবে তৈরি হয়েছে কি দিয়ে! কারিগররা জানালেন, এক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়েছে রাবরি ও নলেন গুড় দুটোই। এই দুয়ের মিশ্রণেই তৈরি হয়েছে খেলা হবে সন্দেশ। দাম প্রতি পিস ১০ টাকা। শোকেসে আসার সঙ্গে সঙ্গেই ক্রেতাদের মন জয় করে নিয়েছে এই তিন মিষ্টি। বিক্রিও হচ্ছে ভালই।

তৃণমূলের জোড়াফুল এবং বিজেপির প্রতীক পদ্ম ফুল মিষ্টির পাশাপাশি এই মুহূর্তে খেলা হবে মিষ্টির চাহিদাও রীতিমত তুঙ্গে উঠেছে। প্রতিদিন কাটতি ভালোই উভয় মিষ্টিরই। তবুও বর্ধমানের বাজারে কোন মিষ্টির চাহিদা তুলনামূলক বেশি? দোকানের কর্ণধার সৌমেন দাস জানালেন, তৃণমূল প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দিয়েছে। বিজেপি এখনও এখানের প্রার্থী ঘোষণা করেনি। তাই হয়তো এখানে আপাতত জোড়াফুল মিষ্টির চাহিদাই বেশী রয়েছে।

(শরদিন্দু ঘোষ)

Published by:Subhapam Saha
First published:

লেটেস্ট খবর