• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • Burdwan News: করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা, দ্রুত চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়ানোর উদ্যোগ পূর্ব বর্ধমানে

Burdwan News: করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা, দ্রুত চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়ানোর উদ্যোগ পূর্ব বর্ধমানে

ওমিক্রনের হাত ধরে বাড়ছে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কা। সেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় দ্রুত পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে তৈরি করা হচ্ছে চিকিৎসা পরিকাঠামো 

ওমিক্রনের হাত ধরে বাড়ছে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কা। সেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় দ্রুত পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে তৈরি করা হচ্ছে চিকিৎসা পরিকাঠামো 

ওমিক্রনের হাত ধরে বাড়ছে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কা। সেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় দ্রুত পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে তৈরি করা হচ্ছে চিকিৎসা পরিকাঠামো 

  • Share this:

#বর্ধমান: ওমিক্রনের হাত ধরে বাড়ছে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কা। সেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় দ্রুত পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে তৈরি করা হচ্ছে চিকিৎসা পরিকাঠামো। তৈরি হচ্ছে নতুন তিনটি একশো বেডের হাসপাতাল। ব্লক স্তর থেকে শুরু করে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলির পরিকাঠামোও বাড়ানো হচ্ছে। হাই রিস্ক আইসিইউ থেকে শুরু করে করোনা চিকিৎসার সব রকম পরিকাঠামো এলাকায় এলাকায় তৈরি রাখার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে  বলে জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। তিন মাসের মধ্যে এই হাসপাতালগুলি তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: পাঁচ বছরের মেয়েকে ঘুম পাড়িয়ে স্ত্রীকে খুন! পালানোর আগেই হাওড়ায় পুলিশের জালে স্বামী

পূর্বস্থলীর শ্রীরামপুর হাসপাতাল, মেমারি গ্রামীণ হাসপাতাল ও কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে নতুন একশো বেডের পরিকাঠামো তৈরি করা হচ্ছে। কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে একশো বেডের মধ্যে ২৪ টি বেড নিয়ে হাই রিক্স আইসিইউ তৈরি করা হচ্ছে। এছাড়াও সাতটি ব্লকে তৈরি হচ্ছে আলাদা পরিকাঠামো। সেখানে করোনা মোকাবিলায় কুড়িটি করে বেডের পরিকাঠামো তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও পাঁচটি প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নতুন করে তৈরি করা হচ্ছে ৬ বেডের পরিকাঠামো। মন্তেশ্বর, মঙ্গলকোট, খন্ডঘোষ-সহ সাতটি ব্লকে কুড়িটি করে বেডের হাসপাতাল তৈরি হচ্ছে।

আরও পড়ুন: কুলতলির শেখপাড়ার জঙ্গলে দক্ষিণ রায়কে ঘুমপাড়ানি গুলি, ধরা পড়ল রয়্যাল বেঙ্গল

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব কুমার রায় বলেন, অক্সিজেন পাইপ লাইন থেকে শুরু করে  করোনা রোগীর চিকিৎসায় যা-যা প্রয়োজন সবই নতুন করে তৈরি করা হচ্ছে। পিডবলুডি এই পরিকাঠামো তৈরির কাজ করছে। তিন মাসের মধ্যে তাদের কাজ শেষ করতে বলা হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, একশো বেডের এক একটি হাসপাতাল তৈরির জন্য সাড়ে সাত কোটি টাকা করে খরচ ধরা হয়েছে। এক একটি কুড়ি বেডের হাসপাতাল তৈরি হবে সাড়ে তিন কোটি টাকায়। তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়লে তা মোকাবিলার জন্যই দ্রুততার সঙ্গে এই পরিকাঠামো তৈরি করা হচ্ছে। এর ফলে আক্রান্তরা ঘরের কাছের হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে পারবেন।

Published by:Rukmini Mazumder
First published: