corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা রুখতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর ওষুধ বিলি হোমিওপ্যাথি মেডিক্যালের

করোনা রুখতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর ওষুধ বিলি হোমিওপ্যাথি মেডিক্যালের

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বাসিন্দাদের আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ নামের ওষুধ দিল বর্ধমান হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বাসিন্দাদের  আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০  নামের ওষুধ দিল বর্ধমান হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ। বিনামূল্যে এই ওষুধ বিতরণ করলেন বর্ধমান হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। তাঁরা বলেন, এটি করোনার ওষুধ নয়, এই ওষুধ খেলে করোনা সেড়ে যাবে বা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না, তা বলছি না। তবে নিয়ম মেনে এই ওষুধ খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে অনেকটাই। তাতে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমবে।

ক্রমেই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। প্রতিষেধক তৈরি করতে দিন রাত এক করে কাজ করে চলেছেন বিশ্বের তাবড় তাবড়  বিজ্ঞানীরা। তবে এখনও আবিষ্কার করা যায়নি প্রতিষেধক।  এই পরিস্থিতিতে রোগ প্রতিরোধে জোর দিচ্ছে সরকার। কেন্দ্রের আয়ুষ মন্ত্রকের পরামর্শে এবং সেন্ট্রাল কাউন্সিল অফ হোমিওপ্যাথির অনুমোদনে আজ, বৃহস্পতিবার থেকে বর্ধমান হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজে বিনামূল্যে আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ ওষুধ বিলি করা শুরু হয়। বৃহস্পতিবার বর্ধমান হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ থেকে ৩৫০ জনকে এই ওষুধের প্যাকেট দেওয়া হয়।

সকালে পরপর তিন দিন ৩-৪টি করে বড়ি খেতে হবে। এক মাস পর একই ভাবে আবার তিন দিন এই ওষুধ খেতে হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। হোমিওপ্যাথি মেডিক্যাল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, যে পরিমাণ ওষুধ পাঠানো হয়েছে তাতে পূর্ব বর্ধমান জেলার ৫০ হাজার বাসিন্দাকে এই ওষুধ দেওয়া যাবে। চিকিৎসকরা জানান, এই ওষুধ এক বছরের বেশি বয়স এমন যে কোনও  পুরুষ বা মহিলা খেতে পারেন। এক্ষেত্রে  শ্বাসকষ্ট বা অন্য ক্রনিক রোগের জন্য অন্য কোনও হোমিওপ্যাথি ওষুধ খেলে তা  বন্ধ রাখতে হবে।

বর্ধমান হোমিওপ্যাথি মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসক তারক সরকার জানান, ' এই ওষুধটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। আমরা দেখছি, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যাঁদের কম, তাঁরাই মূলত করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। যেমন বয়স্করা! এই ওষুধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমবে।'  একই সঙ্গে চিকিৎসকেরা সাবধান করেছেন, '   ওষুধ খেয়ে নিলাম মানেই করোনা আর শরীরের ধারেকাছে ঘেঁষতে পারবে না, এমনটা ভেবে নেওয়া ঠিক হবে না। তাই এই ওষুধ খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে  সব বিধি যেমন মেনে চলা হচ্ছে তা চালিয়ে যেতে হবে।  সব সময় মাস্ক বা ফেস কভারে মুখ ঢাকতে হবে। বারে বারে  স্যানিটাইজার বা সাবান জলে হাত ভালভাবে ধুতে হবে। বাইরে বের হলে  সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলতে হবে।'

SARADINDU GHOSH

Published by: Rukmini Mazumder
First published: May 14, 2020, 8:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर