corona virus btn
corona virus btn
Loading

ভারি বর্ষণের আশায় প্রহর গুণছেন পূর্ব বর্ধমান জেলার কৃষকরা

ভারি বর্ষণের আশায় প্রহর গুণছেন পূর্ব বর্ধমান জেলার কৃষকরা

টানা দুই সপ্তাহ অনাবৃষ্টি, সেইসঙ্গে প্রচণ্ড দাবদাহে জমিতে জল নেই বললেই চলে। এখন ভারি বৃষ্টিই একমাত্র চাষ বাঁচাতে পারে। ঠিক এই সময় রবিবার থেকে ভারি বর্ষণের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

  • Share this:

#বর্ধমান: কয়েকদিনের টানা তীব্র দাবদাহের পর অবশেষে আকাশের কোণে মেঘ দেখা দিয়েছে। তাতেই আশার আলো দেখছেন পূর্ব বর্ধমান জেলার কৃষকরা। প্রায় দুই সপ্তাহ এই জেলায় সেভাবে বৃষ্টি নেই বললেই চলে। আর তাতেই ধান চাষ বাঁচাতে চরম সমস্যায় পড়েছেন কৃষকরা। তাঁরা বলছেন, এই সময় স্বাভাবিক নিয়মেই বৃষ্টি হয়। সারা বছর তেমন বৃষ্টির আকাল না দেখা দিলেও হঠাৎ করেই যেন বৃষ্টি উধাও হয়ে গিয়েছে। টানা দুই সপ্তাহ অনাবৃষ্টি, সেইসঙ্গে প্রচণ্ড দাবদাহে জমিতে জল নেই বললেই চলে। এখন ভারি বৃষ্টিই একমাত্র চাষ বাঁচাতে পারে। ঠিক এই সময় রবিবার থেকে ভারি বর্ষণের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। আকাশে মেঘের আনাগোনাও শুরু হয়েছে। তাতেই আশায় বুক বাঁধছেন কৃষকরা।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখার কারণে পূর্ব বর্ধমান জেলা সহ দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে রবিবার সন্ধ্যা থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে। এই বৃষ্টি এখন খুবই প্রয়োজন বলেই মনে করছেন রাজ্যের শস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত পূর্ব বর্ধমান জেলার কৃষকরা। জেলা কৃষি দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যে সবচেয়ে বেশি আমন ও আউশ ধান উৎপন্ন হয় এই জেলাতেই। এবারও লক্ষ্যমাত্রার বেশি জমিতে এই দুটি ধানের চাষ হয়েছে। প্রথমদিকে ভালো বর্ষণ হলেও এখন কিছু কিছু জমিতে জলের কিছুটা অভাব দেখা দিয়েছে। এই সময় ভারি বর্ষণ হলে ফলন আরও ভালো হবে।

কৃষকরা বলছেন, এই সময় ধানগাছ অনেকটাই বড় হয়েছে। এখন জমিতে কয়েক ইঞ্চি করে জল দাঁড়িয়ে থাকলে ভালো হয়। এই সময় ধান গাছে থোড় এসেছে। কিছু কিছু জমিতে ধানের শিস তৈরি হয়েছে। এই সময় জল টান পরলে ফলন কমতে পারে। কিছু জমিতে সেচ খালের জল মিলেছে। বাকি জমিতে বাড়তি অর্থ খরচ করে মাটির তলার জল তুলে জমিতে দিতে হচ্ছে। প্রাকৃতিক নিয়মে জলের অভাব মিললে খরচ কমে, রোগ পোকার হাত থেকেও কিছুটা রেহাই পাওয়া যায়। তাই এখন বৃষ্টির আশায় প্রহর গুনছেন কৃষকরা।

Saradindu Ghosh

Published by: Elina Datta
First published: September 19, 2020, 1:04 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर