• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বাড়তে পারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ! চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়ছে পূর্ব বর্ধমানে !

বাড়তে পারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ! চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়ছে পূর্ব বর্ধমানে !

করোনার সংক্রমণ আরও বাড়বে এই আশঙ্কায় চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়াচ্ছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন।

করোনার সংক্রমণ আরও বাড়বে এই আশঙ্কায় চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়াচ্ছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন।

করোনার সংক্রমণ আরও বাড়বে এই আশঙ্কায় চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়াচ্ছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন।

  • Share this:

#বর্ধমান: করোনার সংক্রমণ আরও বাড়বে এই আশঙ্কায় চিকিৎসা পরিকাঠামো বাড়াচ্ছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। বেশি সংখ্যক আক্রান্তকে চিকিৎসা পরিষেবার আওতায় আনতে এই পরিকাঠামো বাড়ানোর পরিকল্পনা বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। পূর্ব বর্ধমান জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই সাত হাজার পেরিয়ে গিয়েছে। এদিন পর্যন্ত এই জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭১৭১ জন। তার মধ্যে ছয় হাজার ৪৮০ জন ইতিমধ্যেই চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৫৮৪ জন। এ দিন পর্যন্ত পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ১০৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত চব্বিশ ঘন্টায় পূর্ব বর্ধমান জেলায় ৮৭ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

পুজো মিটতেই শীতের আমেজ ধরা পড়েছে জেলাজুড়ে। আবহাওয়া পরিবর্তনের এই সময়ে ঘরে ঘরে জ্বর সর্দি কাশিতে আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকেই। তাদের অনেকে করোনার নমুনা পরীক্ষা করাচ্ছেন।সেই নমুনা পরীক্ষায় অনেককেই করোনা পজিটিভ রিপোর্ট পাচ্ছেন। তাদের করোনা হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা করানো হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উৎসবের এই মরশুমে অনেকেই করোনার পরীক্ষা করাতে তেমন আগ্রহ দেখাচ্ছেন না।জেলা স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে ক্যাম্প করা হলেও সেখানে যাচ্ছেন না বাসিন্দাদের অনেকেই। তাতেও অনেকেই নতুন করে আক্রান্ত হওয়ার ভয় পাচ্ছেন স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা। তাঁরা বলছেন,পরীক্ষা বাড়ানো হলে আক্রান্তের সংখ্যাও তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে। তাদের চিকিৎসা পরিষেবার আওতায় আনতেই পরিকাঠামো বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

বর্ধমানে এমনিতেই একটি করোনা হাসপাতাল রয়েছে। সেখানে শতাধিক আক্রান্তের চিকিৎসা পরিকাঠামো রয়েছে। এছাড়াও ১০০ বেডের পরিকাঠামো তৈরি হচ্ছে বর্ধমানের নির্মীয়মান কৃষি ভবনে। সেখানে ইতিমধ্যেই অক্সিজেন পাইপ লাইন বসানো হয়েছে। এখানে ৬০টি জেনারেল ও ৪০টি আই সি ইউ বেড রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব কুমার রায় বলেন, মঙ্গলবার ২০টি জেনারেল বেডের পরিকাঠামো তৈরি করে সেখানে রোগী ভর্তি শুরু হয়েছে।পয়লা নভেম্বরের মধ্যে ধাপে ধাপে সব কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে।

SARADINDU GHOSH

Published by:Piya Banerjee
First published: