যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, খুন করেছে প্রেমিকাই, সন্দেহের বশে তাকে হেনস্থা স্থানীয়দের

যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, খুন করেছে প্রেমিকাই, সন্দেহের বশে তাকে হেনস্থা স্থানীয়দের
Representative Image
  • Share this:

#বীরভূম:  যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য৷ সন্দেহের বশে প্রেমিকাকে আটকে রাখেন স্থানীয়রা৷ পরে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় তাকে৷ ঘটনা সিউড়ির দত্তপুকুর পাড়ার। মৃতের নাম বিশ্বজিৎ কাহার। তার সঙ্গে স্থানীয় কুলেরা গ্রামের এক যুবতীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল৷ এই সম্পর্ক কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না ছেলের মা। সে কারণেই গতকাল ওই মেয়েটিকে ফোন করে গালাগালি দেয় বিশ্বজিতের মা৷ এমনকি বিশ্বজিৎ এর সাথে সম্পর্ক রাখতে নিষেধ করেন। এর পর বিশ্বজিৎ বাড়ি থেকে রাগ করে বেরিয়ে যান৷ বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যে হয়ে যায়, রাতেও বিশ্বজিৎ বাড়ি না ফেরায় চিন্তায় পড়ে সকলে।

আরও পড়ুন ATM থেকে ৮ হাজার টাকা কুড়িয়ে পেলেন ব্যক্তি, তুলে দিলেন পুলিসের হাতে!

আজ অর্থাৎ রবিবার, সকালে দত্তপুকুর পাড়া থেকে কিছুটা দূরে নিমগাছ থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় বিশ্বজিতের। মৃতদেহের পাশ থেকে উদ্ধার হয় মেয়েদের ব্যাগ, ওড়না, মেয়েদের সাইকেল ও কয়েকটি চটি। স্থানীয় বাসিন্দারা সন্দেহ করে যে মেয়েটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিল বিশ্বজিতের সেই মেয়েই সবকিছু জানেন৷ এর পর উত্তেজিত জনতা মেয়েটিকে তুলে নিয়ে আসে তার বাড়ি থেকে। এবং আটকে রাখে মারধোর করার চেষ্টাও করা হয়। যদিও ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় সিউড়ি থানার পুলিশ। পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। বিশ্বজিতের মায়ের দাবি ওই মেয়েটি তার ছেলেকে খুন করা করিয়েছে। পাশাপাশি একই সন্দেহ স্থানীয় বাসিন্দাদের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা তৈরি হয় সিউড়ির দত্তপুকুর পাড়ায়।

First published: 07:28:49 PM Nov 03, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर