দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে বোমা! জানাজানি হল বিস্ফোরণের পর

শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে বোমা! জানাজানি হল বিস্ফোরণের পর
বিস্ফোরণে ব্যাপক ক্ষতি হয় স্কুলের৷

কী ভাবে স্কুলের শৌচাগারে বোমা এল বা কারা রাখল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

  • Share this:

#বর্ধমান: শিশুশিক্ষা কেন্দ্রর পরিত্যক্ত শৌচাগারে রাখা ছিল বোমা! জানা গেল তা বিস্কোরণে পর। বেশ কিছু পোড়া সুতলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাই সুতলি বোমা থেকেই এই বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে প্রাথমিক তদন্তের পর মনে করছে পুলিশ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।পূর্ব বর্ধমান জেলার গলসি এক নম্বর  ব্লকের আটপাড়া গ্রামে ধর্মপুর হাজরাপাড়া শিক্ষাকেন্দ্রের ঘটনা।

বিস্ফোরণে স্কুলের ওই পরিত্যক্ত ওই শৌচাগারের দেওয়াল ধসে যায়। টিনের চাল উড়ে যায়। গ্রামবাসীরা জানান,  দুপুরের পর প্রচণ্ড জোরে শব্দ হয়। তা শুনে ছুটে যান তাঁরা। প্রথমে গ্রামবাসীরা ভাবেন যে স্কুলে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়েছে। কিন্তু ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন, চারপাশ বারুদের গন্ধে ভরে গিয়েছে৷ ছড়িয়ে ছিঁটিয়ে রয়েছে সুতলি। গলসি থানার পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। কিছুক্ষণ পর পুলিশ আসে। নমুনা সংগ্রহের পাশাপাশি জায়গাটিকে  বাঁশ দিয়ে ঘিরে রেখেছে পুলিশ।

কী ভাবে স্কুলের শৌচাগারে বোমা এল বা কারা রাখল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। জেলা পুলিশ জানিয়েছে, গলসি থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।  গ্রামবাসীরা জানান, মাঝেমধ্যেই এলাকা রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। তেমনই কোনও গোষ্ঠী পরিত্যক্ত শৌচাগারে এই বোমা রেখেছিল বলে মনে করা হচ্ছে। করোনার কারণে শিশুশিক্ষা কেন্দ্র বন্ধ। কবে চালু হবে তা ঠিক নেই। কেউ আসবে না ধরে নিয়েই সেখানে সুতলি বোমা মজুত করে রাখা হয়েছিল। তা ফেটেই এই বিপত্তি ঘটেছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Debamoy Ghosh
First published: September 26, 2020, 10:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर