• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • দুই ভাইয়ের গলাকাটা দেহ উদ্ধার, উত্তপ্ত বহরমপুরের কাঠালিয়া গ্রাম

দুই ভাইয়ের গলাকাটা দেহ উদ্ধার, উত্তপ্ত বহরমপুরের কাঠালিয়া গ্রাম

বাড়িতে বিধবা মা ও বোনকে নিয়ে থাকত সুজিত৷ কিন্তু এ দিন সকাল থেকেই বাড়িতে কেউ ছিল না৷ পুলিশ এসে তালা ভেঙে সুজিতের ঘরে ঢোকে৷ সেখানেই খাটের নীচে মাটি খুঁড়ে রামকৃষ্ণ সরকারের দেহ উদ্ধার হয়৷ Info- Rajarshi Roy

বাড়িতে বিধবা মা ও বোনকে নিয়ে থাকত সুজিত৷ কিন্তু এ দিন সকাল থেকেই বাড়িতে কেউ ছিল না৷ পুলিশ এসে তালা ভেঙে সুজিতের ঘরে ঢোকে৷ সেখানেই খাটের নীচে মাটি খুঁড়ে রামকৃষ্ণ সরকারের দেহ উদ্ধার হয়৷ Info- Rajarshi Roy

খুনের অভিযোগে রবিবার সকালে অভিযুক্ত সন্দেহে কয়েকজনকে পুলিশ আটক করলে পুলিশের কাছ থেকে তাদের ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে ক্ষুব্ধ জনতা।

  • Share this:

#বহরমপুর:  দুই যুবকের গলাকাটা দেহ উদ্ধার হওয়াকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়াল বহরমপুরের কাঠালিয়া গ্রামে। মৃত দুই যুবক  তাঞ্জারুল  ও মানজারুল শেখ সম্পর্কে মাসতুতো ভাই। গত শুক্রবার বিকেল থেকে নিখোঁজ ছিলেন তাঁরা। রবিবার সকালে গ্রামের একটি বিলে দেহ দু'টি পাওয়া যায়। দু'টি মৃতদেহের গলা থেকে দেহ আলাদা করে কেটে দিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। হাত দু'টিও পিছন দিক থেকে বাঁধা ছিল।

খুনের অভিযোগে রবিবার সকালে অভিযুক্ত সন্দেহে কয়েকজনকে পুলিশ আটক করলে পুলিশের কাছ থেকে তাদের ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে ক্ষুব্ধ জনতা। বহরমপুর থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  রবিবার সকালে হঠাৎই দুই ভাইয়ের দেহ ভেসে ওঠে। বহরমপুর থানা থেকে বিশাল পুলিশবাহিনী গিয়ে দেহ দু'টি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে পাঠায়।  মৃতদের মধ্যে এক যুবকের মা আলেমা বিবি বলেন, 'মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন আগে গন্ডগোল হয়েছিল। কিন্তু সেই গন্ডগোলের জেরে দুই ভাইকেই মেরে ফেলা হবে তা বুঝতে পারিনি। আমার ছেলেকে যেভাবে  খুন করেছে, তার যথাযথ শাস্তি যেন পুলিশ ওদের দেয়।'

জেলার পুলিশ সুপার কে সাবেরী রাজকুমার বলেন, প্রাথমিকভাবে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করেই দুই  যুবককে খুন করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। আমরা আটজনকে আটক করেছি। জেরা করে আসল ঘটনা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Pranab Kumar Banerjee

Published by:Debamoy Ghosh
First published: