রাজ্যে ছড়াচ্ছে ‘Blue Whale’ মারণ গেমের আতঙ্ক !

রাজ্যে ছড়াচ্ছে ‘Blue Whale’ মারণ গেমের আতঙ্ক !
Representational Image

‘নীল তিমি’ আক্রমণের আতঙ্ক এখন এরাজ্যেরও বিভিন্ন জেলায়।

  • Share this:

#বেলদা: ‘নীল তিমি’ আক্রমণের আতঙ্ক এখন এরাজ্যেরও বিভিন্ন জেলায়।একটি মোবাইল গেম জীবনকে ধীরে ধীরে নিয়ে যায় অন্তিমের দিকে। ছাত্র এবং যুবকরা এতে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ ঝুঁকি নিচ্ছে। গড়বেতা ও চন্দ্রকোনার খবর উঠে আসতেই আতঙ্ক আরও ছড়িয়েছে।

একটা মোবাইল ফোন।অবশ্যই অ্যান্ড্রয়েড।আর তাতেই চলে আসছে লিঙ্ক।ডাউনলোড।আর তারপর টিন এজারের কৌতুহল নিয়ে  নীল তিমির খেলা। কতগুলো ধাপ একের পর এক। হাত কেটে তিমির ছবি,কিংবা সাঙ্কেতিক কোনও চিহ্ন এবং কারোর নির্দেশ মতো কাজ। আরও কত কী।আর তাতে দিন দিন যেন মজছে ছাত্র যুব সমাজ।

জীবন শেষ হয়ে যাচ্ছে নিছক একটি মোবাইল গেমে। জেলার অন্যান্য প্রান্তের মতো সেই নীল তিমির থাবা এবার বেলদাতেও।বেলদা গঙ্গাধর অ্যাকাডেমি স্কুলের অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্র ‘ব্লু ওয়েল’ গেমে আসক্ত।দাদার কাছ থেকে জেনে,দেখে এই কাজে হাত দেওয়া।উপাদান মাত্র দুটি।একটা ভাঙা ব্লেড ও একটি ভাঙা আয়না। বাঁ হাত কেটে ব্লু হোয়েল গেম খেলা।যদিও ছেলেটি দরিদ্র পরিবারের।বাবা সামান্য রাজমিস্ত্রির কাজ করেন। স্কুলের শিক্ষকদের কাছে ধমক খেয়ে স্বীকার করেছে ছেলেটি তার এই গেম খেলার কথা

স্কুল কর্তৃপক্ষ অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রকে বকাঝকা করে ও বুঝিয়ে নিরস্ত করেছেন মারণ গেম থেকে। চিকিৎসা করিয়েছেন স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে।প্রধানশিক্ষক ননীগোপাল শীট জানাচ্ছেন-" ঘটনাটি জানতে পেরে স্কুলের তরফ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি।এখন ছেলেটি স্কুলে এসে পড়াশোনা করছে প্রতিদিন।ছাত্ররা যাতে মারণ খেলার দিকে না ঝুঁকে পড়ে তার দিকে সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে।’’

First published: 08:12:35 PM Sep 01, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर