Hiran Chatterjee: নিরুদ্দেশ হিরণ, বিজেপি-র তারকা বিধায়কের নামে পোস্টার খড়্গপুরে

হিরণের নামে পোস্টার খড়্গপুরে৷

বিধানসভা নির্বাচনে খড়্গপুর সদর কেন্দ্র থেকে জয়ী হন অভিনেতা হিরণ৷ ভোটের আগে এবং পরে খড়্গপুরে বেশি করে সময় কাটানোর কথা জানিয়েছিলেন তিনি৷ এ দিন

  • Share this:

    #খড়্গপুর: এলাকায় দেখা নেই বিধায়ক হিরণের৷ আর এই অভিযোগেই খড়্গপুর শহরের তালবগিচা এলাকায় একাধিক পোস্টার পড়ল বিজেপি বিধায়কের নামে৷ তৃণমূল কংগ্রেস তো বটেই, স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশেরও অভিযোগ প্রায় একমাসেরও বেশি সময় খড়্গপুরে দেখা মেলেনি বিধায়ক হিরন্ময় চট্টোপাধ্যায়ের৷ যদিও এই অভিযোগকে তৃণমূলের অপপ্রচার বলেই দাবি করেছেন খড়্গপুর সদরের বিধায়কের৷

    বিধানসভা নির্বাচনে খড়্গপুর সদর কেন্দ্র থেকে জয়ী হন অভিনেতা হিরণ৷ ভোটের আগে এবং পরে খড়্গপুরে বেশি করে সময় কাটানোর কথা জানিয়েছিলেন তিনি৷ এ দিন

    অবশ্য খড়্গপুরের তালবগিচা এলাকায় বিধায়কের নামে একাধিক পোস্টার দেখতে পান সাধারণ মানুষ৷ কোনও পোস্টারে অভিযোগ করা হয়েছে, বিধায়ক নিরুদ্ধেশ, খুঁজে পেতে সাহায্য করুন৷ আবার কোনও পোস্টারে কটাক্ষ করে বলা হয়েছে, নিখোঁজ বিধায়ককে খুঁজে দিতে পারলে তাঁর সঙ্গেই সেলফি তোলার সুযোগ মিলবে৷

    সাতসকালে বাজারে এসে এমন পোস্টার দেখে চমকে ওঠেন অনেকেই৷ তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের কয়েকজনও অভিযোগের সঙ্গে সহমত পোষণ করে জানিয়েছেন, সত্যিই হিরণকে এলাকায় দেখা যাচ্ছে না৷ বিশু ঘোষ নামে এক স্থানীয় বাসিন্দার অভিযোগ, 'ভোটের আগে এখানকার বিধায়ক অনেক রকম প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন৷ কিন্তু এখন তাঁকে আমরা দেখতে পাচ্ছি না৷ এলাকায় করোনা আক্রান্তে ছয়লাপ হয়ে গিয়েছে, মাইক্রো কন্টেইনমেন্ট ঘোষণা করা হয়েছে, কিন্তু বিধায়কের দেখা কেউ পাননি৷ গরিব মানুষও কোনও সহযোগিতা পাননি৷ এই পোস্টার যাঁরাই লাগাক না কেন, অভিযোগ সত্যি৷'

    অরূপ দাস নামে খড়্গপুর শহরের আর এক প্রবীণ বাসিন্দারও অভিযোগ, 'এত মানুষের করোনা হল, এত সমস্যার মধ্যে মানুষ রয়েছেন, কিন্তু উনি আসছেন না, খোঁজও নিচ্ছেন না৷ উনি আমাদের বিধায়ক হয়েছেন, কিন্তু নিজের দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করছেন না৷'

    স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের অবশ্য দাবি, তারা এই পোস্টার লাগাননি৷ খড়্গপুর শহরের যুব তৃণমূল সভাপতি অসিত পাল বলেন, 'পোস্টারে কোনও দল বা কারও নাম নেই৷ আমরাও এটা দেখলাম৷ কারা পোস্টার লাগিয়েছে আমরা জানি না৷ করোনার সময় খড়্গপুরের পাঁচটি ওয়ার্ডে কন্টেইনমেন্ট জোন ঘোষণা হলেও আজ প্রায় কুড়ি দিন তাঁর দেখা পাচ্ছেন না সাধারণ মানুষ৷ বিধায়কের থেকে কোনও সার্টিফিকেট প্রয়োজন হলেও মানুষ পাচ্ছে না৷ খড়্গপুরে তিনি যে বাড়ি ভাড়া নিয়েছিলেন সেখানেও তাঁকে পাওয়া যাচ্ছে না৷ উনি সিনেমার হিরো, এখন বিধায়ক হয়েও শ্যুটিংই করছেন৷'

    যদিও সমস্ত অভিযোগই অস্বীকার করেছেন বিধায়ক হিরণ৷ তাঁর পাল্টা দাবি, বিধানসভার অধিবেশন চলায় তিনি খড়্গপুরের বাইরে রয়েছেন৷ একই সঙ্গে হিরণের দাবি, খড়্গপুরের কাজ নিয়েই ব্যস্ত রয়েছেন তিনি৷ পাল্টা তৃণমূলের দিকে তোপ দেগে হিরণের অভিযোগ, 'আমি বিধায়ক হওয়ায় ওদের নানা রকম কারচুপি, দুর্নীতি করতে অসুবিধে হয়৷ তাই আমার অনুপস্থিতিতে অপপ্রচার চালাচ্ছে তারা৷ আমি খড়্গপুরের জন্যই কাজ করছি৷'

    Shankar Rai

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: