Assembly Election 2021: 'বহিরাগত তোলাবাজ, জেলখাটা আসামী', মদন মিত্রকে বেনজির আক্রমণ রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের

শুক্রবার সকালে দক্ষিণেশ্বরের মন্দিরে নির্বাচনী প্রচারের জন্য পুজো দিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। রাজু বদ্যপাধ্যায় বলেন, "মদন মিত্র বহিরাগত তোলাবাজ। জেলখাটা আসামী।"

শুক্রবার সকালে দক্ষিণেশ্বরের মন্দিরে নির্বাচনী প্রচারের জন্য পুজো দিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। রাজু বদ্যপাধ্যায় বলেন, "মদন মিত্র বহিরাগত তোলাবাজ। জেলখাটা আসামী।"

  • Share this:

#কামারহাটিঃ ফের বিস্ফোরক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার সকালে দক্ষিণেশ্বরের মন্দিরে নির্বাচনী প্রচারের জন্য পুজো দিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। রাজু বদ্যপাধ্যায় বলেন, "মদন মিত্র বহিরাগত তোলাবাজ। জেলখাটা আসামী।" এ দিন সকাল দশ'টা নাগাদ বিজেপি প্রার্থী রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় মন্দিরের গেটের সামনে এসে পৌঁছান। সামনে গেরুয়া বেলুন নিয়ে সদর্পে এসে পৌঁছয় শ'খানেক বাইক বাহিনী।

এ দিন করোনা বিধি মেনে রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় পাঁচজনকে সঙ্গে নিয়ে মন্দিরে ঢোকেন। ১৫ মিনিটের মধ্যে পুজো দিয়ে বেরিয়ে আসেন। মন্দিরের বাইরে অজস্র সমর্থকদের উন্মাদনা ছিল ছখে পড়ার মতো। মন্দির থেকে বেরিয়ে বলেন, "আমি সকলের শুভ কামনা করেছি। মদন মিত্রকে নিয়ে প্রশ্ন করলে বলেন, 'আমি মায়ের কাছে তার জন্যও, শুভ কামনা জানিয়েছি।" বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য বিজেপির বেশ কয়েকজন নেতা সবসময়ই সংবাদ শিরোনামে থাকেন। তারমধ্যে রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় অন্যতম।

এ দিন তিনি আরও বলেন,"মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখন পা ভেঙে গোলকিপার হয়েছেন। এবার বিজেপি দু'শো পার।" রাজু সকালে, দক্ষিণেশ্বর এলাকায় রাস্তায় রাস্তায় এবং প্রতিটি বাড়ির দরজায় গিয়ে প্রচার সারেন, পরিচিয় করেন। অধিকাংশ মানুষের মধ্যে রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দনের হাত বাড়ানোর প্রবণতা ছিল। কামারহাটির বিজেপি প্রার্থী বলেন, "কামারহাটি বিধানসভা এলাকায়, যে সমস্ত কলকারখানা বন্ধ করে দিয়েছে। সেখানে বড় বড় প্রমোটিং হয়েছে। সেগুলো যদি অবৈধ হয়ে থাকে, তাহলে আইনের সাহাজ্য নিয়ে ভেঙে ফেলা হবে। সেখানে পুনরায় কারখানা তৈরি হবে। বেকারত্ব কমানোর জন্য যে সমস্ত কারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছে, সেগুলো পুনরায় চালু হবে। শিল্পের জমিতে শিল্প হবেই।"

উল্লেখ্য, কামারহাটি এলাকার বাসিন্দা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি দাবি করেন মদন মিত্র কামারহাটিতে বাইরে থেকে গুন্ডা এনে উপদ্রব করেন। এলাকার কোন উন্নতি করেনি। কামারহাটির মানুষ মেনে নেবেন না। যদিও কামারহাটির বিধান সভা এখনও বামেদের দখলে।

SHANKU SANTRA

Published by:Shubhagata Dey
First published: