টাকা ফেরত না দিয়েই ঝাঁপ বন্ধ করেছে সমবায়, মহিলাদের নিয়ে ধর্নায় বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা

টাকা ফেরত না দিয়েই ঝাঁপ বন্ধ করেছে সমবায়, মহিলাদের নিয়ে ধর্নায় বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা
সমবায়ে টাকা রেখে প্রতারিত বাসিন্দারা। আমানতকারীদের টাকা না ফেরত দিয়েই ঝাঁপ বন্ধ করেছে দুটি সমবায় সমিতি। প্রায় তিন হাজার গরিব মহিলা সেখানে টাকা রেখেছিলেন।

সমবায়ে টাকা রেখে প্রতারিত বাসিন্দারা। আমানতকারীদের টাকা না ফেরত দিয়েই ঝাঁপ বন্ধ করেছে দুটি সমবায় সমিতি। প্রায় তিন হাজার গরিব মহিলা সেখানে টাকা রেখেছিলেন।

  • Share this:

#কালনা: সমবায়ে টাকা রেখে প্রতারিত বাসিন্দারা। আমানতকারীদের টাকা না ফেরত দিয়েই ঝাঁপ বন্ধ করেছে দুটি সমবায় সমিতি। প্রায় তিন হাজার গরিব মহিলা সেখানে টাকা রেখেছিলেন। সেইসব আমানতকারীদের পাশে দাঁড়াল বিজেপি।বুধবার কালনায় বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পালের নেতৃত্বে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালেন সমবায় টাকা রাখা মহিলারা। অবিলম্বে টাকা ফেরতের দাবিতে কালনা বৈঁচি রাস্তা অবরোধ করে তারা। বিজেপি নেত্রীর এই কর্মসূচিকেভোটের আগে বাজার গরমের চেষ্টা বলে প্রতিক্রিয়া তৃণমূলের।

পূর্ব বর্ধমানের কালনা দু-নম্বর ব্লকের অন্তর্গত সেনেরডাঙা সমবায় সমিতি ও নেপাকুলী সমবায় সমিতিতে টাকা জমা রেখেছিলেন এলাকার মহিলারা। অভিযোগ, প্রায় তিন হাজার আমজনতার টাকা ফেরত না দিয়েই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ওই দুটি সমবায় সমিতি। বিজেপি আর্থিক গরমিলের অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল পরিচালিত পঞ্চায়েত সমিতি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। বাসিন্দাদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন প্রশাসনের বিভিন্ন জায়গায় দরবার করেও কোনও ফল মেলেনি। টাকা ফেরত দেবার কোনও উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না।


অসহায় সেই সব বাসিন্দাদের নিয়ে আন্দোলন শুরু করল বিজেপি। সমবায় সমিতিতে টাকা রাখা আমানতকারী মহিলাদের সঙ্গে নিয়ে ধরনায় বসে তারা। বিজেপি মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পালের নেতৃত্বে কালনার সেনেরডাঙায় কালনা বৈঁচি রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানো হয় পাশাপাশি অগ্নিমিত্রা পাল ধর্না মঞ্চ থেকেও অবিলম্বে এলাকার দরিদ্র মহিলাদের টাকা ফেরত দেবার দাবি জানান। তিনি বলেন, প্রায় ৪৫ লক্ষ টাকা ফেরত না দিয়ে টাকা লুট করে নেওয়া হয়েছে। সেই টাকা ফেরতের দাবিতেই এই আন্দোলন।

স্থানীয় তৃণমূল নেতা প্রণব রায় বলেন, টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ভিত্তিহীন। ওই দুটি সমবায় রুগ্ন ছিল। তারপর গত বছর তেমন আয় হয়নি। বিষয়টি নিয়ে সমবায় মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা চলছে। সমবায় হরিণ পেলে আমানতকারীদের টাকা ফিরিয়ে দেবে। এই সুযোগে বিজেপি ভোটের আগে বাজার গরম করতে চাইছে। এলাকায় তাদের সংগঠন বলে কিছু নেই।

Saradindu Ghosh

Published by:Shubhagata Dey
First published: