অর্জুন সিংয়ের উপর হামলার প্রতিবাদে ১২ ঘণ্টার বনধ বারাকপুরে, বাস চলাচল বন্ধ

কাঁকিনাড়ায় রেল অবরোধ শুরু করে বিজেপি সমর্থকরা। বনধের প্রভাব টিটাগড়েও।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 02, 2019 09:49 AM IST
অর্জুন সিংয়ের উপর হামলার প্রতিবাদে ১২ ঘণ্টার বনধ বারাকপুরে, বাস চলাচল বন্ধ
মাথা ফাটল বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 02, 2019 09:49 AM IST

#বারাকপুর: বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের উপর হামলার প্রতিবাদে সোমবার ১২ ঘণ্টার বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি।

সকাল থেকে বন্ধ অধিকাংশ দোকান-বাজার। বনধের জেরে বাস চলাচলও বন্ধ কাঁকিনাড়ায়। ঘোষপাড়া রোডে আর কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়েতে দফায় দফায় অবরোধ বিজেপিকর্মীদের। বনধের প্রভাব পড়েছে শ্যামনগর, টিটাগড় আর জুটমিলগুলিতেও। বনধ ঘিরে অশান্তি এড়াতে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশের বিশাল বাহিনী।

কাঁকিনাড়ায় রেল অবরোধ করেন বিজেপিকর্মীরা। প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে চলে রেল অবরোধ। পরে পুলিশ গিয়ে অবরোধ তুলে দেয়।

রবিবার ফের রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় কাঁকিনাড়া। এর সূত্রপাত অবশ্য শ্যামনগরে। সেখানে পার্টি অফিস দখল ঘিরে তৃণমূল-বিজেপির সংঘর্ষ হয়। এরপরই কাঁকিনাড়া, শ্যামনগর, টিটাগড়, হালিশহরের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তা অবরোধ শুরু করে বিজেপি। কাঁকিনাড়ার সার্কাস মোড়ে রাস্তা অবরোধে সামিল হন অর্জুন সিংয়ের ছেলে, ভাটপাড়ার বিধায়ক পবন সিং। সেখানেই উপস্থিত হন সিপি মনোজ বর্মা। পরিস্থিতি সামলাতে লাঠিচার্জ শুরু করে। পাল্টা পুলিশকে লক্ষ করে ইট ছোড়া হয়। তখনই আক্রান্ত হন অর্জুন সিং। তাঁর সামনেই পুলিশকে মারধর করা হল। ধস্তাধস্তি সিপির সঙ্গেও। রাস্তায় পড়ে যান পুলিশ কমিশনার। পরিস্থিতি সামলাতে সিপিকেও শূন্যে গুলি চালাতে হয়।

Loading...

মুড়ি-মুড়কির মতো পড়ল বোমা। খোদ পুলিশ কমিশনারকে লক্ষ্য করে ছোঁড়া হয়েছিল ইটি ও বোমা।

এরপরে কাঁকিনাড়ার মেঘনা মোড়ে অর্জুন সিংয়ের বাড়ির সামনে পৌঁছয় পুলিশ। ভিতরে ঢুকতে গেলে অর্জুন সিংয়ের দেহরক্ষী ও বিজেপির মহিলা কর্মী-সমর্থকরা বাধা দেন। বিজেপির বেশ কয়েকজন মহিলা সমর্থককে আটক করে পুলিশ।

আক্রান্ত অর্জুন সিংকে ভরতি করা হয় কলকাতার অ্যাপোলো হাসপাতালে।

First published: 09:47:54 AM Sep 02, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर