Bjp Leader Join Tmc: এলাকায় ছিলেন BJP-র মুখ, 'জাতপাতের' রাজনীতিতে বীতশ্রদ্ধ হয়ে তৃণমূলে এই নেতা!

দলবদল...

Bjp Leader Join Tmc: গেরুয়া শিবিরের প্রতি মোহভঙ্গ হয়েছে বিজেপির বীরভূম জেলা কমিটির সদস্য ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের অবজার্ভার মানস বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তাই তৃণমূলে যোগদান।

  • Share this:

    #বীরভূম: পাঁচ বছর আগে ছেড়ে দিয়েছিলেন তৃণমূল। অভিযোগ ছিল বিস্তর। সেই সূত্রে যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে। কিন্তু পাঁচ বছরেই গেরুয়া শিবিরের প্রতি মোহভঙ্গ হয়েছে বিজেপির বীরভূম জেলা কমিটির সদস্য ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের অবজার্ভার মানস বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তাই আর না পেরে পুরনো দলেই প্রত্যাবর্তন করলেন মানস বাবু। শনিবার তাঁর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন ময়ূরেশ্বরের তৃণমূল বিধায়ক অভিজিৎ রায়।

    ২০১৬ সালে যখন তৃণমূল ছেড়েছিলেন, তখন দলের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ তুলেছিলেন মল্লারপুর ২ নম্বর পঞ্চায়েতের রায়পাড়ার বাসিন্দা মানস বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপরই বিজেপিতে যোগদান। সেই থেকে জেলায় বিজেপির সভা সমিতিতে সামনের সারিতেই থাকতেন মানস বাবু। এমনকী এলাকায় বিজেপির মুখ বলতেও ছিলেন তিনি। দেখা গিয়েছিল। ধীরে ধীরে তিনি এলাকায় বিজেপির মুখ হয়ে উঠেছিলেন।

    শুধু তাই নয়, যে পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিরোধীদের মনোনয়ন পেশে পর্যন্ত বাধা দেওয়ার বিস্তর অভিযোগ উঠেছিল, সেই পঞ্চায়েত ভোটেও মল্লারপুরের দুটি পঞ্চায়েত থেকে বিজেপি মনোনয়ন জমা দিয়েছিল মানস বন্দ্যোপাধ্যায়ের একরোখা মনোভাবের কারণেই। আর তার ফলেই মল্লারপুর ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত দখলে আসে বিজেপির।

    এবারের বিধানসভা ভোটের আগেও যথেষ্ট সক্রিয়ই ছিলেন তিনি। রামপুরহাটের তারাপীঠ রোড স্টেশনের কাছে তাঁকে মেরে ফেলার চক্রান্তের অভিযোগ করেছিলেন তিনি। সেই তিনিই এবার তৃণমূলে। সঙ্গে করে নিয়ে এলেন তাঁর অনুগামীদেরও, যাঁদের মধ্যে বিজেপির তপশিলি মোর্চার ব্লক সভাপতি বিকাশ কাহারের মতো নেতাও রয়েছেন।

    কেন বিজেপি ছাড়লেন? মানস বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘বছর পাঁচের আগে মনোমালিন্যের কারণেই আমি তৃণমূল ছেড়েছিলাম। আর কোনও কারণ ছিল না। তারপর বিজেপিতে যোগ দিই। কিন্তু ক্রমেই বুঝতে পারছিলাম, এরা জাতপাতের রাজনীতি ছাড়া আর কিছু বোঝে না। বিজেপির মতো সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে থেকে রাজনীতি করা যায় না। আমার নিজস্ব নীতি আদর্শ রয়েছে, তা বিসর্জন দিতে পারব না। বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার মানুষ সাম্প্রদায়িক বিজেপিকে বুঝিয়ে দিয়েছে, এই বাংলায় তাঁদের ঠাঁই নেই। তৃণমূল উন্নয়ন করেছে, এ কথা অস্বীকার করা যাবে না। তাই আমি উন্নয়নের স্বার্থে ঘরে ফিরলাম।’ ময়ূরেশ্বরের তৃণমূল বিধায়ক অভিজিৎ রায়ের আরও দাবি, মানস বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আরও একশোটি পরিবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেছে।

    Published by:Suman Biswas
    First published: