অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে বিজেপি বড়সড় ভাঙন! জেলার যুব মোর্চার নেতারা হাতে তুলে নিলেন তৃণমূলের পতাকা

অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে বিজেপি বড়সড় ভাঙন! জেলার যুব মোর্চার নেতারা হাতে তুলে নিলেন তৃণমূলের পতাকা
বীরভূম জেলার যুব মোর্চার নেতারা বুধবার হাতে তুলে নিলেন তৃণমূলের পতাকা।

বীরভূম বিজেপিতে বড়সড় ভাঙ্গন। সংগঠনের যুব মোর্চার সহ-সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করলেন।

  • Share this:

#বোলপুর: বীরভূম বিজেপিতে বড়সড় ভাঙ্গন। সংগঠনের যুব মোর্চার সহ-সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করলেন। বুধবার বীরভূমের সিউড়ি দু-নম্বর ব্লকের  দলীয় সভায় তৃণমূল কংগ্রেসের হাত ধরলেন তারা। তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি কয়েকশো কর্মী-সমর্থক নিয়ে তাঁরা এ দিন তৃনমুল দলে শামিল হন। এছাড়াও এ দিনের মহিলা কর্মী সম্মেলন থেকে সাঁইথিয়া জনসভার প্রার্থী হিসেবে বর্তমান বিধায়ক নীলাবতীর সাহার নাম ঘোষণা করলেন অনুব্রত মণ্ডল।

বীরভূম বিজেপির যুব মোর্চার সহ-সভাপতি অনিন্দ্য সিংহ এবং  বীরভূম বিজেপির যুব মোর্চার সম্পাদক কুন্তল ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে এ দিন প্রায় ৪০০ জন বিজেপির কর্মী সমর্থক তৃণমূলে যোগ দিলেন। সাঁইথিয়া বিধানসভা এলাকার সিউড়ি-২ ব্লকের মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভায় তাঁদের হাতে পতাকা তুলে দেন বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। কয়েকদিন আগে সিউড়ি শহরে বিজেপির যুব কর্মীদের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট ঘিরে ব্যাপক মারধর ও পাল্টা মারধর হয়। এ দিন তাঁদের মধ্যেই এক পক্ষ দলের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগ করে বিজেপির হাত ধরল।

এ ছাড়া অনুব্রত মণ্ডল এদিন সভা মঞ্চ থেকে সাঁইথিয়া বিধানসভার আগামী নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে বর্তমান বিধায়ক নীলাবতি সাহার নাম আগাম ঘোষণা করে দিলেন। যদিও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই জানিয়েছিলেন যারা বর্তমান বিধায়ক আছেন তাদের সকলকেই নির্বাচনের প্রার্থী পদ দেওয়া হবে। এ দিন যোগ দেওয়ার পর বিজেপি ত্যাগী অনিন্দ্য সিংহ বলেন," দলের বর্তমান জেলা সভাপতি ধ্রুব সাহা  আমাদেরকে কোন গুরুত্ব দিচ্ছিল না সাংগঠনিকভাবে। আমরা বাধ্য হয়ে তৃণমূলের উন্নয়ন যজ্ঞে সামিল হলাম।"


এ ছাড়াও বিজেপির বেশ কিছু নেতা তোলাবাজি করছে বলেও অভিযোগ তার। তবে বিজেপির বীরভূমের তরফে জানানো হয়েছে তাদের কাছে আগে থেকেই খবর ছিল বিজেপি যুব মোর্চার বেশ কয়েকজন তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন। সেই কারণে তারা ঐ সমস্ত যুব মোর্চার কর্মীদের গুরুত্ব দিচ্ছিলেন না।

Supratim Das

Published by:Shubhagata Dey
First published: