corona virus btn
corona virus btn
Loading

দেওয়া হল না ভাইফোঁটা, মৃত আদির ছবির দিকে তাকিয়ে ছোট দুই বোনের

দেওয়া হল না ভাইফোঁটা, মৃত আদির ছবির দিকে তাকিয়ে ছোট দুই বোনের
এবারই প্রথম ফোঁটা দেওয়ার কথা ছিল আদিকে

এবার যে প্রথম ভাইফোঁটা ছিল... কিন্তু নিমেষে সব শেষ...

  • Share this:

#বেহালা: ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা। সব বাড়িতে যখন বোনেদের মুখে মঙ্গল কামনা, বেহালার শীলপাড়ার বাড়িটায় তখন কান্নার রোল। প্রাণঘাতী তুবড়ি প্রাণ কেড়েছে ৫ বছরের আদি দাসের। এবার যে প্রথম ভাইফোঁটা ছিল... কিন্তু নিমেষে সব শেষ... কোনওদিন বাজি ফাটাতে দিত না পরিবার। এবার আদি বায়না জুড়েছিল, তুবড়ি জ্বালানো দেখবেই। বাজির আনন্দ কান্না হয়ে ঝরল। ভাইফোঁটায় বেহালার শীলপাড়ার বাড়িটাতে অন্ধকার... হাহাকার... প্রাণঘাতী তুবড়ি মুহূর্তে কেড়ে নিয়েছে আদি দাসকে। ক্ষোভ-দুঃখ জমাট হয়ে পরিবারের গলায়। ভেজাল বাজি তৈরির অসাধু চক্রের কারণেই ছেলেকে হারানোর অভিযোগ বাবার।

আরও পড়ুন: দীপাবলির রাতে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ! বেহালায় তুবড়ি ফেটে মৃত ৫ বছরের শিশু শীলপাড়ায় দত্তরায়দের বাড়িতে সাত বছর ধরে ভাড়া থাকত দাস পরিবার। দু’বছর আগে কাছেই অন্য বাড়ি বদল। আদির কোনও বোন নেই। পাঁচ বছর পর্যন্ত ফোঁটা দেওয়ার নিয়ম নেই। এবার আদির ৫ বছর দু’মাস বয়স হয়েছিল। দত্তরায়দের দুই বোন ভেবেছিল, আদিকে ফোঁটা দিয়ে চমকে দেবে। প্রথম ভাইফোঁটায় সব থমকে গেল। সেদিন তুবড়ি ফেটে গলায় লাগে আদির। তুবড়ি ফেটে আহত হয় দত্তরায়ের ছোট মেয়ে ঋতিষাও। শিশুর কপালে এখনও ক্ষত। মনের ক্ষত তার থেকেও বেশি দগদগে। আরও পড়ুন: বেহালায় তুবড়ি ফেটে ৫ বছরের শিশুর মৃত্যু, গ্রেফতার বাজি বিক্রেতা ও নির্মাতা রক্তের সম্পর্ক নয়। সম্পর্কটা ছিল ভালবাসার। ফুটফুটে আদির জন্য আদুরে ভাবনা ছিল দুই বোনের। ভাইফোঁটার আদর, আবদার সব মুছে গেল চোখের জলে।

First published: October 29, 2019, 4:55 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर