সাবধান! যখন-তখন ট্রেনের জানলা লক্ষ্য করে ছোঁড়া হচ্ছে পাথর

সাবধান! যখন-তখন ট্রেনের জানলা লক্ষ্য করে ছোঁড়া হচ্ছে পাথর

রামপুরহাট ও তারাপীঠ স্টেশনের মাঝে হঠাৎই একটি পাথর এসে তাঁর মাথায় লাগে। পাথরটা এতো জোরে বাইরে থেকে ছোড়া হয়েছিল যে তুষারকান্তিবাবুর মাথায় গভীর ক্ষত হয়।

  • Share this:

Sharadindu Ghosh

#বর্ধমান: ট্রেনে  উঠলেই কি জানালার ধারের সিট আপনার প্রথম পছন্দের তালিকায়? আপনি চলন্ত ট্রেন থেকে জানালার বাইরের গাছপালা, ঘরবাড়ি, জনবসতি, সেখানকার বাসিন্দাদের জীবিকার অফুরান ছবি দেখতে দেখতে সময় কাটিয়ে দেন। জানালার ধারে বসে দেখুন সবকিছু, তবে সাবধানে। কারণ, জানালার বাইরে থেকে গুলির মতো ছুটে আসা পাথরে ক্ষতবিক্ষত হতে পারেন আপনি। চোখে সেই পাথর লাগলে চিরদিনের মতো দৃষ্টিশক্তি হারাতে পারেন। মাথায় লাগলে প্রাণহানির আশঙ্কাও থাকছে। তাই সাবধান।

বর্ধমানের নতুনপল্লীর বাসিন্দা,পেশায় শিক্ষক তুষারকান্তি মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে ঠিক তেমনটাই ঘটেছে। গ্রামের বাড়িতে কাজ মিটিয়ে শনিবার সন্ধ্যায় ডাউন জয়নগর-হাওড়া ফাস্ট প্যাসেঞ্জারে উঠেই তিনি জানালার ধারে বসেন।  রামপুরহাট ও তারাপীঠ স্টেশনের মাঝে হঠাৎই একটি পাথর এসে  তাঁর মাথায় লাগে। পাথরটা এতো জোরে বাইরে থেকে ছোড়া হয়েছিল যে তুষারকান্তিবাবুর মাথায় গভীর ক্ষত হয়। সঙ্গে সঙ্গে রক্তে ভেসে যায় শরীর। সহযাত্রীরা রুমাল চেপে রক্তপাত আটকানোর চেষ্টা করলেও রেলের তরফে কোনও সহযোগিতাই করা হয়নি বলে অভিযোগ।

তুষারকান্তি মুখোপাধ্যায়ের অভিযোগ, ট্রেনে কোনও রেলরক্ষী ছিলেন না। তিনি বলেন, ‘‘ট্রেন ততক্ষণে আমোদপুর ঢোকার মুখে। আমি চিকিৎসার সাহায্য চেয়ে রামপুরহাট স্টেশনের এনকোয়ারি নম্বরে ফোন করি। বিস্তারিত জানিয়ে চিকিৎসার জন্য ফোন করি। কিন্তু কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।’’

ক্ষোভে ফেটে পড়েন তুশারকান্তিবাবু ৷ বলেন, রেলের হাতে অনেক সময় ছিল। সদিচ্ছা থাকলে বোলপুর স্টেশনে চিকিৎসককে দিয়ে রক্তক্ষরণ বন্ধ করা যেত। কিন্তু ডাক্তার পাঠানো তো দূরের কথা, রেলের পক্ষ থেকে যোগাযোগ পর্যন্ত করা হয়নি। পরে রাতে সহযাত্রীদের সহযোগিতায় বর্ধমান স্টেশনে নামেন। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  গিয়ে চিকিৎসাও করান। মাথায় সেলাই পড়ে তাঁর। রবিবার বর্ধমান জিআরপি থানায়  অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

বর্ধমান রেল পুলিশ জানিয়েছে, বাইরে থেকে কারা পাথর ছুঁড়েছিল তা খতিয়ে দেখা হবে।গত বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের নানা প্রান্তে চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোঁড়ার ঘটনা বেড়েছে। তবে সবক্ষেত্রেই অভিযোগ, রেল কোনও ক্ষেত্রেই ব্যবস্থা নেয়নি, কাউকে গ্রেফতার করেনি।

First published: January 20, 2020, 7:31 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर