দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

সর্বনাশ! বাজারে আড্ডা দিয়েছেন, রাত কেটেছে আত্মীয়ের বাড়ি, আক্রান্তের সংস্পর্শে সংক্রমণের ভয়ে কাঁটা সকলেই

সর্বনাশ! বাজারে আড্ডা দিয়েছেন, রাত কেটেছে আত্মীয়ের বাড়ি, আক্রান্তের সংস্পর্শে সংক্রমণের ভয়ে কাঁটা সকলেই
রাজ্যে লকডাউন বিধিভঙ্গ নিয়ে ক্ষুব্ধ কেন্দ্র৷ PHOTO- FILE

কাজ করতেন কলকাতার মেটিয়াবুরুজের পোশাক কারখানায়। লক ডাউনে কাজ বন্ধ। বাস ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় বাড়ি ফিরতে পারছিলেন না। অবশেষে ৮ এপ্রিল বাড়ি ফেরেন আক্রান্ত ব্যক্তি।

  • Share this:

#খন্ডঘোষঃ কাজ করতেন কলকাতার মেটিয়াবুরুজের পোশাক তৈরির কারখানায়। লক ডাউনে কাজ বন্ধ। বাস ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় বাড়ি ফিরতে পারছিলেন না। অবশেষে ৮ এপ্রিল মোটর সাইকেলে পূর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষের বাদুলিয়ায় বাড়ি ফেরেন  বছর তেতাল্লিশের ওই ব্যক্তি।

কলকাতা থেকে ফিরলেও হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার প্রয়োজন অনুভব করেননি তিনি। ঘুরে বেরিয়েছেন নিজের ইচ্ছেমত। এই সময়ের মধ্যেই তিনি একাধিকবার বাজারে গিয়েছিলেন বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। এখানেই শেষ নয়, আত্মীয় পরিজনদের বাড়িতেও দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন। বাড়িতে ফেরার সাতদিন পর অর্থাৎ ১৫ এপ্রিল শরীর খারাপ হয়। জ্বর আসে সামান্য। শুরু হয় গলাব্যথা। ১৬ এপ্রিল বর্ধমানে জাতীয় সড়কের পাশে কোভিড নাইন্টিন হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় নমুনা। শনিবার রাতে তার নমুনা করোনা পজিটিভ হয়।

এই ঘটনা জানাজানি হতেই চিন্তিত রায়না খন্ডঘোষ মাধবডিহি-সহ গোটা দক্ষিণ দামোদর এলাকা। প্রশাসন সূত্রে খবর, ওই ব্যক্তি কলকাতা থেকে ফিরে পরিচিতদের সঙ্গে মেলামেশা করেছেন। খন্ডঘোষে এক আত্মীয় বাড়িতে রাত কাটিয়েছেন। এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে মিলে বাড়ি বাড়ি দরিদ্রদের চাল-সহ খাদ্য সামগ্রী বিলিয়েছেন। থিকথিকে ভিড় থাকা পলেমপুর সবজি বাজারেও কাটিয়েছেন দীর্ঘক্ষণ। ঘুরেছেন টোটোয় চড়ে। গিয়েছেন বিডিও অফিসে। আক্রান্ত ব্যক্তি বহু জনের সংস্পর্শে আসায় চিন্তিত সকলেই। উদ্বেগে রয়েছে প্রশাসনও। পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসক বিজয় ভারতী জানান, ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা একত্রিশ জনকে কোয়ারান্টিনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বাকিদেরও চিহ্নিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

Saradindu Ghosh

Published by: Shubhagata Dey
First published: April 19, 2020, 8:16 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर