হোম /খবর /দক্ষিণবঙ্গ /
'তোলা' তুলতে তাড়া করেছিল পুলিশের গাড়ি! তার পরই ঘটে গেল মর্মান্তিক ঘটনা

'তোলা' তুলতে তাড়া করেছিল পুলিশের গাড়ি! তার পরই ঘটে গেল মর্মান্তিক ঘটনা

Bardhaman News: পুলিশের তাড়া। তার পর যা হল, মর্মান্তিক।

  • Share this:

#সাতগেছিয়া: পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে তড়িঘড়ি ট্রাক্টর থেকে নেমে পালাতে গিয়ে  গিয়ে মৃত্যু হল এক চালকের। ওই ট্রাক্টরের চাকায় পরে মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত ওই ব্যক্তির নাম আলন শেখ। কালনার হাঁসপুকুর কুণ্ডু ভাটার কাছের এই ঘটনা ঘটেছে।

ট্রাক্টরে করে একটি ইট ভাটার মাটি বইছিলেন ওই ব্যক্তি। এমন সময় পিছন দিক থেকে একটি পুলিশের গাড়ি আসতেই ওই ট্রাক্টর চালক তড়িঘড়ি পালাতে যান। তখনই ট্রাক্টরের চাকায় পিষ্ট হন তিনি।

আরও পড়ুন- সেচখাল 'সংস্কারের' নামে চলছিল বিরাট অপকর্ম! বন দফতরের অভিযানে ফাঁস আসল সত্যি

ওই ব্যক্তিকে সঙ্গে সঙ্গে সেখান থেকে উদ্ধার করে কালনা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে রেফার করে দেন। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। এলাকায় বাসিন্দাদের অভিযোগ, পুলিশ ট্রাক্টর বা মালবাহী যানবাহন দেখলেই তোলা আদায় করে। জুলুম করে। সেই জুলুমবাজি থেকে বাঁচতেই ওই চালক পালানোর চেষ্টা করেছিলেন। তার জেরেই ওই ব্যক্তির মৃত্যু হল।

ঘটনার প্রতিবাদ করে কালনায় এসডিপি অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখান বাসিন্দারা। ঘটনাস্থলে কালনা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। এলাকায় যান বিধায়ক দেবপ্রসাদ বাগ।

এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে কালনার পঞ্চায়েত এলাকায় মাটির কারবার চলে। বিভিন্ন ঘাট থেকে ওই মাটি ট্রাক্টরে পৌঁছয় ইটভাটাসহ বিভিন্ন জায়গায়। এই বেআইনি করবার বন্ধের বদলে পুলিশ তাদের কাছ থেকে তোলা আদায় করে।

এই ট্রাক্টরটিতে চালক ছাড়াও ৮ জন শ্রমিক ছিলেন। পুলিশের গাড়ি আসতে দেখে চালক অন্য একটি ইটভাটায় ট্রাক্টরটি ঢুকিয়ে দেন। সেখানেও পিছু নেয় পুলিশের গাড়ি। পুলিশের গাড়িটি দ্রুত গতিতে ইটভাটায় ঢুকে পারে। এর পরই দুর্ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন- Malda News: সেনা জওয়ানের বাড়িতে চুরি, আগুন ধরিয়ে প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা দুষ্কৃতীদের

পূর্ব সাতগেছিয়া পঞ্চায়েতের প্রধান তাপস সরকার বলেন, পুলিশের গাড়ি কী কারণে হাঁসপুকুর এসেছিল, তা ওরাই বলতে পারবে। তবে মাটির কারবারে পুলিশ উৎকোচ নেয় বলে শুনেছি। সে নিয়ে এলাকার বাসিন্দাদের ক্ষোভ রয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জেলা পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন।

Published by:Suman Majumder
First published:

Tags: Bardhaman, West bengal Police