Home /News /south-bengal /
Bardhaman Traffic Jam : টোটোর শহর যানজট থেকে মুক্তি পাবে কবে? পুরভোটের মুখে প্রশ্ন বাসিন্দাদের

Bardhaman Traffic Jam : টোটোর শহর যানজট থেকে মুক্তি পাবে কবে? পুরভোটের মুখে প্রশ্ন বাসিন্দাদের

Bardhaman Traffic Jam

Bardhaman Traffic Jam

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, সব মিলিয়ে টোটোর শহরে পরিণত হয়েছে বর্ধমান (Bardhaman Traffic Jam)

  • Share this:

বর্ধমান : আগে বর্ধমানকে বলা হত রিকশার শহর। এখন রিকশার জায়গা নিয়েছে টোটো। অভিযোগ, শহরে বৈধ টোটো যত চলে বেআইনি টোটো চলে তার তিনগুণ। টোটোর দাপটে লাগামছাড়া যানজট এই শহরে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, সব মিলিয়ে টোটোর শহরে পরিণত হয়েছে বর্ধমান (Bardhaman Traffic Jam)।

এই শহরে অন্যতম সমস্যা যানজট। তার একটা বড় কারণ টোটোর আধিক্য। বর্ধমানবাসীর আক্ষেপ, ব্যাটারিচালিত এই যান চলাচলে কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। সরকারিভাবে বেশ কিছু পরিকল্পনা নেওয়া হলেও তার বাস্তবায়ন ঘটেনি। তার ফলে এবারের পুরভোটে বর্ধমানে অন্যতম ইস্যু হয়ে উঠেছে এই যানজটের সমস্যা।

শহরের এই যানযট ও টোটোর দৌরাত্ম্য থেকে মুক্তি মিলবে কি না সেই প্রশ্ন এখন ঘুরছে ভোটারদের মুখে। ক্ষমতায় যে দলই আসুক, এই ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে হবে  বলে দাবি করছেন পুর বাসিন্দারা। স্বাভাবিক ভাবেই পুরভোটের লড়াইয়ের ময়দানে রাজনৈতিক দলগুলিও প্রচারে এই ইস্যু নিয়ে সরব হচ্ছে। যানজটের যন্ত্রণা থেকে মুক্তির আশ্বাসও দিচ্ছেন রাজনীতির নেতা নেত্রীরা।

আরও পড়ুন : লস্যি জুড়ে কাজু-আমন্ড আর ছোট এলাচের গুঁড়ো, দশ টাকায় গ্লাস ভরা তৃপ্তি এই প্রাচীন দোকানে

প্রাচীন শহর বর্ধমান। অধিকাংশ রাস্তাই সংকীর্ণ। জনসংখ্যা বেড়েছে।  বেড়েছে জবরদখল। সংকীর্ণ হয়েছে রাস্তা। ফলে বর্ধমান শহরের গুরুত্বপূর্ণ সব রাস্তাতেই সকাল থেকে সন্ধে পর্যন্ত যানজট নিত্য সমস্যা। শহরের কার্জন গেট থেকে উত্তর ফটক পর্যন্ত বিসি রোড বর্ধমান শহরের লাইফলাইন। এই রাস্তার দু'ধারেই রয়েছে বাজার এলাকা ও দোকানপাট। ছোট গাড়ি, পণ্য বোঝাই ভ্যান যাতায়াত করে এই রাস্তার উপর দিয়ে। এছাড়া স্টেশন থেকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের রাস্তাতেও যানজট সমস্যা লেগেই থাকে বিভিন্ন মোড়ে। সেই যানজটকে মাত্রাছাড়া করে তুলেছে টোটো।  পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ আকার নিয়েছে।

আরও পড়ুন :  ম্লান মোমো, চাউমিন! শীত পিছু হটতেই ভিড় ফুচকাকাকুর পাশে

পুরসভার পক্ষ থেকে টোটো নিয়ন্ত্রণে একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হলেও তার কোনও কিছুই কার্যকর করা হয়নি বলে অভিযোগ। এর ফলে যানজটের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাননি শহরবাসী। এই পরিস্থিতিতে আসন্ন পুরসভা নির্বাচনে যানজটমুক্ত রাস্তার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ইস্তেহার প্রকাশ করেছে বামফ্রন্ট। সিপিএমের পূর্ব বর্ধমান জেলা কমিটির সদস্য অপূর্ব চট্টপাধ্যায় জানান, টোটো চালকদের দিক থেকে বিষয়টি বিবেচনা করে নির্দিষ্ট পদ্ধতির মাধ্যমে উপায় খুঁজে বের করা হবে। এরফলে শহরবাসী যানজট থেকে যেমন মুক্তি পাবেন, তেমনই টোটো চালকেরাও ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না। সুষ্ঠু প্রশাসনিক ব্যবস্থার মাধ্যমে নজরদারি চালানো ও নির্দিষ্ট নিয়ম চালু করার মাধ্যমেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব হবে।

আরও পড়ুন : তিনি এলেই চিতল, কাতলার হরেক পদ রান্না হত, স্মৃতিতে স্তব্ধ বাপ্পি লাহিড়ির মাসির বাড়ি

বিজেপি নেতা  শ্যামল রায় বলেন, ‘‘ শাসকদল রাজনৈতিক কারণে শহরের অবৈধ টোটো নিয়ন্ত্রণ করছে না। পুরসভার অনুমতির বাইরেও অনেক টোটো চলছে। প্রশাসন সেগুলি নিয়ন্ত্রণ করছে না। সেই কারণেই বর্ধমানের মানুষ অহেতুক যানজটের সমস্যায় ভুগছেন।’’

পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস বলেন, ‘‘ বর্ধমান অনেক পুরনো শহর। সমসাময়িক সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শহরের রাস্তা গড়ে ওঠেনি। বর্ধমান শহরের জনসংখ্যা বাড়ার পাশপাশি যানবাহনের সংখ্যাও বেড়েছে। বর্ধমান শহরের বিভিন্ন রাস্তায় টোটো নিয়ন্ত্রণ করে আরও সুষ্ঠু পরিবহণ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে উদ্যোগ নেবে তৃণমূল সরকার।’’

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Bardhaman

পরবর্তী খবর