দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

কালনায় গঙ্গার মহিষমর্দিনী ঘাটে তর্পণের সময় উপচে পড়ল ভিড়, চিন্তিত শহরের বিশেষজ্ঞরা

কালনায় গঙ্গার মহিষমর্দিনী ঘাটে তর্পণের সময় উপচে পড়ল ভিড়, চিন্তিত শহরের বিশেষজ্ঞরা

করোনার সংক্রমণের মাঝেই একসঙ্গে এত মানুষের সমাগম দেখে চিন্তিত বিশেষজ্ঞরা।

  • Share this:

#কালনা: বৃহস্পতিবার ভোর থেকে কালনার গঙ্গার ঘাটগুলিতে বাসিন্দাদের ভিড় উপচে পড়েছিল। মহালয়ার সকালে তর্পণ করার জন্য কালনার মহিষমর্দিনী ঘাটে অগণিত বাসিন্দা ভিড় করেন। গঙ্গায় স্নান সেড়ে পিতৃ পুরুষের উদ্দেশ্যে পিন্ডদান করেন তাঁরা। এ দিন কালনা ও কাটোয়ার বেশিরভাগ গঙ্গার ঘাটেই অগণিত পুরুষ মহিলা ভিড় করেছিলেন। করোনার সংক্রমণের মাঝেই একসঙ্গে এত মানুষের সমাগম দেখে চিন্তিত বিশেষজ্ঞরা।

মহালয়ার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত প্রতিবারই কালনা, কাটোয়ার গঙ্গার ঘাটগুলিতে পুরুষ মহিলাদের ভিড় উপচে পড়ে। স্থানীয় বাসিন্দারা তো বটেই, দূর দূরান্ত থেকে অনেকেই আসেন এই ঘাটগুলিতে। গঙ্গা স্নান সেড়ে  তর্পণ করে গঙ্গাজল সঙ্গে নিয়ে বাড়ি ফেরেন তাঁরা। এবার করোনা সংক্রমণ রুখতে লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। বেসরকারি বাস চলাচলও অনিয়মিত। তাই এবার মহালয়ায় তর্পনে বিশেষ ভিড় হবে না বলেই মনে করা হয়েছিল। কিন্তু বেলা যতই বেড়েছে ততোই পুণ্যার্থীদের ভিড় উপছে পড়েছে কালনার মহিষমর্দিনী ঘাটে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা অনুভব করেননি অনেকেই। একরকম গা ঘেঁষাঘেঁষি করেই চলেছে তর্পণ, পুজোপাঠ, গঙ্গাস্নান। বর্ধমানের সদরঘাটে দামোদরের তীরেও এদিন তর্পণ করতে আসা বাসিন্দাদের ব্যাপক ভিড় লক্ষ্য করা গিয়েছে।

এই জেলার গঙ্গার ঘাটে ঘাটে তর্পণের এই ভিড় দেখে চিন্তিত বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা বলছেন, অনেকের মুখেই মাস্ক ছিল না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারেও সচেতনতা নাই অনেকের মধ্যেই। তার ওপর কালনা ও তার আশপাশ এলাকা সহ জেলা জুড়ে করোনার সংক্রমণ চলছে। প্রতিদিনই প্রচুর সংখ্যক পুরুষ মহিলা করোনা পজিটিভ হচ্ছেন। তারপরেও বাসিন্দাদের মধ্যে এই সচেতনতার অভাবের পরিনাম খারাপ হতে পারে। এক দেহ থেকে অনেকেই দেহেই করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে। বাসিন্দাদের অভিযোগ, হাজারে হাজারে পুরুষ মহিলা তর্পণের জন্য গঙ্গার ঘাটে হাজির হলেও  সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়ে তাদের সচেতন করতে প্রশাসনকে সেভাবে উদ্যোগী হতে দেখা যায়নি।

Saradindu Ghosh

Published by: Shubhagata Dey
First published: October 6, 2020, 2:31 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर