corona virus btn
corona virus btn
Loading

সামনেই পুজো, বাজার ধরতে সন্ধে পর্যন্ত দোকান খোলা রাখার আবেদন বর্ধমানের ব্যবসায়ীদের

সামনেই পুজো, বাজার ধরতে সন্ধে পর্যন্ত দোকান খোলা রাখার আবেদন বর্ধমানের ব্যবসায়ীদের

গত ছয় মাস ধরে করোনা পরিস্থিতি ও লকডাউনের জন্য ব্যবসা একরকম বন্ধ রয়েছে। তার ফলে চরম সংকটের মধ্যেই দিন কাটছে।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: পুজোর বাজারের কথা ভেবে দোকান খোলা-বন্ধের সময়সীমায় কিছুটা পরিবর্তনের আবেদন জানালেন বর্ধমান শহরের ব্যবসায়ীরা। সেইসঙ্গে রবিবারও যাতে  দোকান বাজার খোলা রাখা যায় সে ব্যাপারেও জেলা শাসকের কাছে আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা। ইতিমধ্যেই পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসকের কাছে এ ব্যাপারে লিখিত আবেদন জানিয়েছে বর্ধমান জেলা ব্যবসায়ী সুরক্ষা সমিতি। তাঁদের বক্তব্য, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে এখন বিধি-নিষেধ জরুরি। সেই বিধিনিষেধ মেনে চলছেন ব্যবসায়ীরাও। তবু ব্যাবসার কথা চিন্তা করে কিছুটা সময় পরিবর্তনের আবেদন জানানো হয়েছে জেলা শাসকের কাছে।

বর্ধমান শহরে করোনা সংক্রমণ ব্যাপক আকার ধারণ করায় দোকান বাজার খোলা বন্ধে বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করেছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। আগামী ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত বিকেল পাঁচটার পর সব দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করেছে জেলা প্রশাসন। এক সপ্তাহ আগে থেকেই নির্দেশ মেনে দোকান বাজার খোলা বন্ধ করা হচ্ছে। বিকেল পাঁচটার পর লকডাউনের চেহারা নিচ্ছে জেলার সদর শহর। এছাড়াও প্রতি রবিবার দোকান বাজার সম্পূর্ণ বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করেছে প্রশাসন। জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানিয়েছেন, বাজারে ভিড় এড়াতেই এই বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বর্ধমান জেলা ব্যবসায়ী সুরক্ষা সমিতির সাধারণ সম্পাদক বিশ্বেশ্বর চৌধুরি বলেন, গত ছয় মাস ধরে করোনা পরিস্থিতি ও লকডাউনের জন্য ব্যবসা একরকম বন্ধ রয়েছে। তার ফলে চরম সংকটের মধ্যেই দিন কাটছে। দোকান কর্মচারীদের অনেকে বেতন পাচ্ছেন না। সামনে পুজোর মরশুম। এই মরশুমে যাতে কিছুটা বেচাকেনা করা যায় সেজন্য জেলা প্রশাসনের কাছে কিছুটা বাড়তি সময় দোকান বাজার খোলা রাখার আবেদন জানানো হয়েছে। প্রশাসনের নির্দেশ মেনেই বিকেল পাঁচটায় আমরা দোকান বন্ধ করে দিচ্ছি। এই সময় সীমা বিকেল পাঁচটার বাদলে সন্ধে সাতটা পর্যন্ত করার আবেদন জানিয়েছি আমরা। কারণ বিকেলের পরেই শহরের বাসিন্দারা বাজারে আসেন। তাই সন্ধে সাতটা পর্যন্ত দোকান বাজার খোলা থাকলে কিছুটা বেচাকেনা হবে বলে আশা করা যায়।

বর্ধমানের ব্যবসায়ীদের বক্তব্য, এমনিতেই রাজ্যের নির্দেশে লকডাউন চলছে। তারপর বিকেল পাঁচটার পর জেলা প্রশাসনের নির্দেশে বাজার বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সব মিলিয়ে খুবই সংকটের মধ্যেই দিন কাটছে। তাই আমাদের আবেদন, রবিবার বাজার বন্ধ রাখার যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা শিথিল করুক জেলা প্রশাসন। রবিবার অনেকে বাজারে আসেন। তাই পুজোর বাজারের কথা চিন্তা করে রবিবার বাজার পুরোপুরি বন্ধের নির্দেশ তুলে নেওয়া হোক।

Published by: Simli Raha
First published: August 20, 2020, 3:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर