করোনা ঠেকাতে তৎপর রাজ্য সরকার, বারাসত হাসপাতালে চালু কোয়ারেন্টাইন

করোনা ঠেকাতে তৎপর রাজ্য সরকার, বারাসত হাসপাতালে চালু কোয়ারেন্টাইন
প্রতীকী ছবি

দু’হাজার জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখার মতো পরিকাঠামো গড়ে তোলা হচ্ছে।

  • Share this:

#বারাসত:করোনা সংক্রামিত সাতটি দেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের ‘কোয়ারেন্টাইনে’ রাখবে রাজ্যে স্বাস্থ্য দফতর। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় ৭০ জনের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে বারাসত জেলা হাসপাতালে। পাশাপাশি, নিউ টাউন-রাজারহাটের মত কলকাতার লাগোয়া এলাকায় আরও জায়গা খোঁজা হচ্ছে। স্বাস্থ্য অধিকর্তা অজয় চক্রবর্তী জানান, শীঘ্রই অন্তত দু’হাজার জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখার মতো পরিকাঠামো গড়ে তোলা হচ্ছে।

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনা-কবলিত চিন, দক্ষিণ কোরিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, ইরান থেকে দেশে ফেরা কোনও ব্যক্তি জ্বর, শ্বাসকষ্ট-সহ সংশ্লিষ্ট কোনও সমস্যা নিয়ে এই রাজ্যে ফিরলে, বিমানবন্দর থেকেই সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। তার জন্য বারাসত হাসপাতালে বিশেষ পরিকাঠামো তৈরি করা হয়েছে। করোনা কবলিত দেশ থেকে এলে তাঁদের তিন ভাগে ভাগ করে পর্যবেক্ষণে রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। বায়ুবাহিত রোগের মোকাবিলায় টুরিস্ট ভিসা বাতিলের পরেও বিদেশ থেকে যাঁরা আসছেন, ভারতীয় হলেও বাধ্যতামূলক ভাবে তাঁদের ১৪ দিন রাজ্যের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

করোনার লক্ষণ না-থাকলেও চিন, কোরিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, স্পেন, ইটালি ও ইরান থেকে আসা ষাটোর্ধ্ব এবং উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবিটিক, হাঁপানিতে আক্রান্তদের দু’সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে রাখতে হবে। এছাড়াও বিহার, ঝাড়খণ্ড-সহ বিভিন্ন রাজ্যের সঙ্গে বাংলার ৭৮টি সীমানায় জ্বরের লক্ষণ নিয়ে কেউ এলে তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিকর্তা।

First published: March 14, 2020, 1:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर