দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

'লড়াইয়ের মাঠে দেখা হবে', শুভেন্দুর বার্তা দেওয়া ব্যানারে ছয়লাপ পূর্ব মেদিনীপুর

'লড়াইয়ের মাঠে দেখা হবে', শুভেন্দুর বার্তা দেওয়া ব্যানারে ছয়লাপ পূর্ব মেদিনীপুর
শুভেন্দু অধিকারী৷ Photo-File

গত মঙ্গলবার নন্দীগ্রামে দু'টি সভা হয়৷ শুভেন্দু অধিকারীর ডাকে প্রথম সভার আয়োজন করে ভূমি উচ্ছেদ প্রতিরোধ কমিটি৷

  • Share this:

#নন্দীগ্রাম: গত ১০ নভেম্বর নন্দীগ্রামের সভা থেকে শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন, 'লড়াইয়ের মাঠে দেখা হবে৷' শহিদ স্মরণে আয়োজিত সমাবেশে নিজের ভাষণে বলা শুভেন্দু অধিকারীর সেই বার্তাই এবার ব্যানারে উঠে এল। নতুন এই ব্যানারে লেখা হয়েছে- 'লড়াইয়ের মাঠে দেখা হবে!'  সভার দু' দিনের মধ্যেই গোটা পূর্ব মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন অংশ এই বার্তা লেখা ব্যানারে ব্যানারে ছয়লাপ। এই বক্তব্য এখন শুভেন্দু অনুগামীদের মোবাইলেও বাজছে। সেই লড়াইয়ের মাঠে দেখা হবে লাইনই এখন জায়গা নিয়েছে শুভেন্দু অনুগামীদের ব্যানারে।

কাঁথি থেকে নন্দীগ্রাম কিংবা হলদিয়া থেকে তমলুক, সর্বত্রই দেখা যাচ্ছে এই ব্যানার। দু' দিন আগেই সমাবেশে শুভেন্দু যে কথা বলেছিলেন, সেই কথাই ব্যানারে উঠে এসেছে দেখে জোর চর্চা শুরু হয়েছে জেলা জুড়ে। হলদিয়ার চৈতন্যপুরের বাসিন্দা তৃণমুলের জেলা পরিষদ সদস্য সোমনাথ ভুঁইয়া থেকে তমলুকের তৃণমুল নেতা আনন্দ নায়েক,  শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামী হিসেবে পরিচিত তৃণমূল নেতারা বলছেন, 'সামনেই ২০২১- এর নির্বাচন, সেই নির্বাচনে তো লড়াই হবেই! সেই লড়াইয়েরই তো ডাক দিয়েছেন আমাদের  শুভেন্দুদা! আগামী দিনে শুভেন্দুদাকে ভালোবেসে আরও পোস্টারে, ব্যানারে ছয়লাপ হবে গোটা এলাকা।'

এরকমই ব্যানার ঘিরে জল্পনা ছড়িয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা জুড়ে৷

শিসেখানে তৃণমূলের কোনও পতাকা, ব্যানার দেখা যায়নি৷ ছিল না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি৷ সেই সভা থেকেই শুভেন্দু মন্তব্য় করেছিলেন, 'নন্দীগ্রাম আন্দোলন কারও একার নয়৷ রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা অপেক্ষা করছেন, শুভেন্দু অধিকারী কী করবেন৷ আমার মত কী, পথ কী, শুভেন্দু অধিকারী কোন রাস্তায় স্বচ্ছন্দ, আমার চলার পথে কোথায় চড়াই- উতরোই, কোন রাস্তা গর্তে ভরা, কোথায় হোঁচট খাচ্ছি, এসব রাজনীতির মঞ্চে বলব৷ এই পবিত্র মঞ্চে রাজনীতি করি না৷ শুভেন্দু অধিকারী কাউকে ভয় পায় না৷' এর পরই কটাক্ষের সুরে তিনি বলেন, 'নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়েছে দেখে খুব ভাল লাগছে৷ ভোটের আগে যেমন আসতেন, ভোটের পরেও তো আসতে হবে!' একই সঙ্গে 'লড়াইয়ের ময়দানে দেখা হবে' বলেও হুঙ্কার ছাড়েন তিনি৷

ওই দিনই বিকেলে তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে নন্দীগ্রামে শহিদ স্মরণের অনুষ্ঠান করা হয়৷ রাজ্যের একাধিক মন্ত্রী উপস্থিত ছিলেন সেই সভায়৷ সেখানে অবশ্য শুভেন্দু অধিকারী ছিলেন না৷ বরং নাম না করেই ওই সভা থেকে শুভেন্দুকে আক্রমণ করেন ফিরহাদ হাকিম সহ তৃণমূল নেতারা৷

SUJIT BHOWMIK

Published by: Debamoy Ghosh
First published: November 12, 2020, 12:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर