corona virus btn
corona virus btn
Loading

ভরা বর্ষায় জল সঙ্কটে ভুগছে বাঁকুড়া, ক্ষোভ বাড়ছে সাধারণ মানুষের মধ্যে

ভরা বর্ষায় জল সঙ্কটে ভুগছে বাঁকুড়া, ক্ষোভ বাড়ছে সাধারণ মানুষের মধ্যে
প্রতীকী ছবি

বাঁকুড়া শহরের জল সঙ্কট নিয়ে একসময় কম রাজনীতি হয়নি। এই জল সঙ্কটকে হাতিয়ার করেই সে সময় শহরে সরব হত বিরোধী দলগুলি।

  • Share this:

#‌বাঁকুড়া:‌ প্রবল গ্রীষ্মে বাঁকুড়া শহরে জল সঙ্কট স্বাভাবিক ঘটনা। তা বলে ভরা বর্ষায় জল সঙ্কট ? নজিরবিহীন ভাবে গত তিন দিন ধরে বাঁকুড়া শহরের বিস্তীর্ণ এলাকায় তেমনটাই ঘটছে। শহরের এই জল সঙ্কট নিয়ে শুরু হয়ে গেছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। দোষারোপ পাল্টা দোষারোপে সরগরম বাঁকুড়ার রাজনীতি।

বাঁকুড়া শহরের জল সঙ্কট নিয়ে একসময় কম রাজনীতি হয়নি। এই জল সঙ্কটকে হাতিয়ার করেই সে সময় শহরে সরব হত বিরোধী দলগুলি। গত কয়েক বছর আগে কয়েকশো কোটি টাকার জল প্রকল্প চালু হওয়ার পর সে সমস্যা অনেকটাই মিটেছিল। কিন্তু দিন তিনেক আগে থেকে শুরু হয়েছে সেই এক পরিস্থিতি। শহরের একটা বড় অংশে পৌঁছচ্ছে না নলবাহিত পানীয় জল। কোথাও ছিটেফোঁটা জল মিললেও তা অনিয়মিত ও ব্যাবহারের অযোগ্য বলে দাবি শহরের মানুষের। ভরা বর্ষায় এমন জল সঙ্কটে পড়ে দিশেহারা শহরের একটা বড় অংশের বাসিন্দারা। ফলে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে কিছু এলাকায় ট্যাঙ্কের মাধ্যমে জল সরবরাহ শুরু করেছে পুরসভা। কিন্তু তাতে চাহিদা পূরন হচ্ছে না স্থানীয়দের।

এদিকে এই ঘটনার জন্য পুরোপুরি তৃনমূল পরিচালিত বাঁকুড়া পুরসভাকে দায়ী করেছেন বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার। তাঁর দাবি পাম্প বিকল হয়ে থাকলে পুরসভা বিকল্প পাম্প দিয়ে শহরে জল সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে পারত। বাঁকুড়া পুরসভার দাবি পাম্প বিকল হয়ে যাওয়াতেই এই সমস্যা তৈরী হয়েছে। দ্রুত তা মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা চলছে। বাঁকুড়া পুরসভার পাল্টা দাবি দ্বারকেশ্বর প্রকল্পের কাজ কেন্দ্রের সরকারের লাল ফিতের ফাঁসে আটকে আছে। ওই প্রকল্প রূপায়িত হলে বাঁকুড়া শহরে আরও স্বচ্ছন্দে জল সরবরাহ করা সম্ভব হত।

Mritunjoy Das

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: August 19, 2020, 6:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर