ছবিকেই ভিক্ষার মাধ্যম করেছেন বাঁকুড়ার এই পট শিল্পীরা

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Mar 25, 2017 03:00 PM IST
ছবিকেই ভিক্ষার মাধ্যম করেছেন বাঁকুড়ার এই পট শিল্পীরা
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Mar 25, 2017 03:00 PM IST

#বাঁকুড়া: ছবির কদর হারিয়েছে । ক্রেতার অভাব সত্ত্বেও হারায়নি শিল্প । নিজেদের দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে ছবিকেই ভিক্ষার মাধ্যম করেছেন পট শিল্পীরা ।

এক সময় বাঁকুড়ার হিড়বাঁধ ব্লকের নয়াডিহি গ্রামের চিত্রকরদের পটের সুনাম ছিল বাংলা জুড়ে । চিত্রকরদের হাতে আঁকা ঠাকুরের দেব-দেবীর পট থেকে শুরু করে মানুষের ক্রমবিবর্তন ও বিভিন্ন প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের পরও মানুষের বাঁচার অস্তিত্বের সংগ্রাম বা মারাংবুরু থেকে মল্ল রাজাদের কুলদেবতা মদনমোহন, জগন্নাথ, বলরাম, সুভদ্রার লীলা কাহিনী এক সময় প্রাণ পেত বাঁকুড়ার হিড়বাঁধের নয়াদিহি গ্রামের চিত্রকরদের পটচিত্রে।

সমুদ্র মন্থন থেকে সাঁওতাল জনগোষ্ঠীর লোকগাঁথাও ফুটে উঠত পটে। এই ভিন্নধর্মী পটের বাজারও ছিল বেশ ভাল । কিন্তু দিন বদলেছে । ডিজিটাল দুনিয়ায় হাতে আঁকা পটের বাজার কমতে কমতে এখন তা পৌঁছেছে এক্কেবারে তলানিতে । কিন্তু তা বলে হারিয়ে যায়নি নয়াডিহির পট শিল্প । নয়াডিহির চিত্রকরদের ভিক্ষার মাধ্যম হয়ে আজও দিব্যি বেঁচে রয়েছে ভিন্নধর্মী সেই পট শিল্প ।

বাঁকুড়ার নয়াডিহির পট শিল্পের বিশেষ কিছু বৈশিষ্ট থাকায় একসময় এর চাহিদা ছিল আকাশ ছোঁয়া । এই গ্রামের চিত্র শিল্পীদের সঙ্গে ক্রেতাদের সরাসরি যোগাযোগ না থাকলেও মেদিনীপুরের নয়া গ্রাম ও পিংলার এক শ্রেণীর ব্যবসায়ীর মাধ্যমে তা ছড়িয়ে পড়ত রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে এমনকী, দেশের বাইরেও । কিন্তু একদিকে মানুষের রুচির পরিবর্তন অন্যদিকে বিভিন্ন ডিজিটাল যন্ত্রের বিকাশ ধীরে ধীরে এই শিল্পকে ঠেলে দেয় অন্ধকারের দিকে ।

ছবির ক্রেতার সংখ্যা দিন দিন কমতে থাকায় অলাভজনক হয়ে পড়ে এই ছবির ব্যবসা । নিজেদের অস্তিত্ব বাঁচাতে নয়াডিহির পথ ভুলে অন্য ব্যবসায় নেমে পড়েন নয়া গ্রাম ও পিংলার ছবি ব্যবসায়ীরা । চাহিদার অভাবে যখন এই শিল্প মৃতপ্রায় সেই সময় নয়াডিহির শিল্পীরা নিজেদের জীবন জীবিকা টিকিয়ে রাখার তাগিদে নিজেদের হাতে আঁকা অপূর্ব ছবিগুলিকেই ভিক্ষার মাধ্যম করে তোলেন । আদিবাসী গান ও নাচের অনুষঙ্গ হিসাবে কুণ্ডলী পাকানো বিভিন্ন দর্শন , কল্প-কাহিনী ও বিভিন্ন জাতি ও প্রজাতির বিবর্তনের ইতিহাসকে ছবির মাধ্যমে তুলে ধরে গ্রামে গ্রামে ভিক্ষা করে বেড়ান নয়াডিহির ১৫টি চিত্রকর পরিবার । ভিক্ষার মাধ্যম হিসাবে নিজেদের অপূর্ব চিত্র শিল্পের এহেন ব্যবহার কার্যত নজিরবিহীন । অনেক না পাওয়ার যন্ত্রনা ভুলে এভাবেই নিজেদের ঐতিহ্যময় ইতিহাসকে সযত্নে সংরক্ষণ করে চলেছেন চিত্রকরেরা ।

সম্প্রতি বাঁকুড়া জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে এই শিল্পকে পর্যটকদের কাছে তুলে ধরতে উদ্যোগ নেওয়া হলেও তাতেও কি ফেরানো যাবে পট শিল্পের অতীতের সেই সুদিন ? প্রশ্নটা তাড়া করে বেড়াচ্ছে চিত্রকর পরিবারগুলিকেও ।

First published: 02:58:24 PM Mar 25, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर