Home /News /south-bengal /

Bangla News: কী কাণ্ড! 'সিসিটিভি ক্যামেরায় নজরদারি', 'কুপ্রস্তাব'! প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষামন্ত্রীকে চিঠি শিক্ষিকার...

Bangla News: কী কাণ্ড! 'সিসিটিভি ক্যামেরায় নজরদারি', 'কুপ্রস্তাব'! প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষামন্ত্রীকে চিঠি শিক্ষিকার...

গুরুতর অভিযোগ শিক্ষিকার

গুরুতর অভিযোগ শিক্ষিকার

Bangla News: প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শুধু অভিযোগ তোলাই নয়, বিষয়টি প্রশাসনের সব স্তরে লিখিতভাবে জানিয়েছেন ওই শিক্ষিকা। অভিযোগ জানিয়েছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর কাছেও।

  • Share this:

#বর্ধমান: প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে কু প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ তুললেন সেই স্কুলেরই এই শিক্ষিকা (Teacher accused Head Master)। প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শুধু অভিযোগ তোলাই নয়, বিষয়টি তিনি প্রশাসনের সব স্তরে লিখিতভাবে জানিয়েছেন। অভিযোগ জানিয়েছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর কাছেও (Bangla News)। ঘটনাকে কেন্দ্র করে পূর্ব বর্ধমান জেলায় জোর চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন: ভোটকর্মীদের দেওয়া হবে ২৫০ টাকা শীতকালীন ভাতা! পুরভোটে নয়া সিদ্ধান্ত কমিশনের...

ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ববর্ধমানের আউশগ্রামের অভিরামপুরের এড়াল অঞ্চল উচ্চ বিদ্যালয়ে। স্কুল শিক্ষিকাকে কুপ্রস্তাব ও শারীরিকভাবে হেনস্থার অভিযোগ উঠেছে স্কুলেরই প্রধান শিক্ষকের (Teacher accused Head Master) বিরুদ্ধে। শিক্ষামন্ত্রী, জেলাশাসক, ডিআই ও এসডিও -র কাছে এই বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই শিক্ষিকা।

স্কুলের সংস্কৃতর চুক্তি ভিত্তিক শিক্ষিকার অভিযোগ, স্কুলের প্রধান শিক্ষক মিলন কুমার বন্দোপাধ্যায় (Teacher accused Head Master) তাঁকে কুপ্রস্তাব দেন। নানাভাবে মানসিক নির্যাতন করেন। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় প্রধান শিক্ষক ক্ষমতার অপব্যবহার করে তাঁকে নানা ভাবে অপদস্ত ও হেনস্তা করছেন বলেও শিক্ষিকা অভিযোগ করেন। তাঁর আরও অভিযোগ, স্কুলের প্রধান শিক্ষক তাঁর উদ্দেশ্যে নানা রকম যৌন উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলেন। এমনকি স্টাফ রুমে সিসি টিভি ক্যামেরা লাগিয়ে তাঁর গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ করেন ও যৌন লালসা মেটান বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন:  অভিষেকের বৈঠকে গরহাজির! নুসরত, মিমিকে শো-কজ করবে তৃণমূল?

বিস্তারিত সব লিখিতভাবে জানিয়ে প্রধান শিক্ষকের (Teacher accused Head Master) দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন ওই শিক্ষিকা। অন্য দিকে সব অভিযোগ অস্বীকার করে প্রধান শিক্ষক মিলন কুমার বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি, "এই অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও একেবারেই উদ্দেশ্য প্রণোদিত। উনি স্কুলের চুক্তি ভিত্তিক শিক্ষিকা। উনি নিজের মতো করে স্কুলে আসবেন ও যাবেন, কোনও প্রতিবাদ করা যাবে না।এমনকি তিনি নিজের মতো করেই ছুটি নেন। স্কুলকে জানানোর প্রয়োজনটুকুও বোধ করেন না। এর প্রতিবাদ করাতেই এই মিথ্যা অভিযোগ। তিনি ঊর্ধ্বতন সম্মানীয় ব্যক্তিদের অভিযোগ করেছেন। তদন্ত হলেই সত্য উদঘাটিত হবে।"

স্কুলে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি স্কুলের অন্যান্য শিক্ষক শিক্ষিকা ও পরিচালন কমিটির সদস্যদের। তবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়ে গিয়েছে এলাকায়।অভিভাবক ও পড়ুয়াদের মধ্যেও বিষয়টির প্রভাব পড়েছে। অভিভাবকরা বলছেন, অভিযোগ সত্য না মিথ্যা সেটা পরের কথা। শিক্ষার অঙ্গনে এই ধরণের ঘটনা কখনই কাম্য নয়।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published:

Tags: Bangla News, Burdwan

পরবর্তী খবর