• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • শ্রাবণ মাসের সোমবারগুলিতে শিবের মাথায় জল ঢালা বন্ধ বক্রেশ্বরে

শ্রাবণ মাসের সোমবারগুলিতে শিবের মাথায় জল ঢালা বন্ধ বক্রেশ্বরে

পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার আবেদন করা হচ্ছে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় মাস্ক ব্যবহার করার জন্য এবং সামাদিক দূরত্ব বজায় রাখতে ৷

পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার আবেদন করা হচ্ছে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় মাস্ক ব্যবহার করার জন্য এবং সামাদিক দূরত্ব বজায় রাখতে ৷

পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার আবেদন করা হচ্ছে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় মাস্ক ব্যবহার করার জন্য এবং সামাদিক দূরত্ব বজায় রাখতে ৷

  • Share this:

#বীরভূম: কোভিড ১৯ বিধি মেনে শ্রাবণ মাসের সোমবার গুলিতে শিবের মাথায় জল ঢালা বন্ধ বক্রেশ্বরে ৷ বন্ধ থাকবে বক্রেশ্বর মন্দিরের দরজা ৷ শিবরাত্রিতে কী হবে তা নিয়েও রয়েছে অনিশ্চিয়তা ৷

বাংলার ৪ই শ্রাবণ ইংরেজির ২০ই জুলাই এই বছরের শিবের মাথায় প্রথম জল ঢালা ৷ কথায় আছে বাঙালিদের ১২ মাসে ১৩ পার্বণ ৷ কিন্তু এবার করোনা ভাইরাসের কারণে সমস্ত সম্প্রদায়ের উৎসব যেন জৌলুসহিন ভাবে পালন করা হচ্ছে ৷

দীর্ঘ দুমাসের উপর লকডাউনের পর মানুষ ভেবেছিল কিছুটা হলেও কমবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৷ কিন্তু করোনা ভাইরাস যে ভাবে দিনের পর দিন আরও বেড়ে চলেছে তাতে চিন্তার ভাঁজ বেড়েছে সরকার থেকে প্রশাসন প্রত্যেকেরই ৷ বেশ কিছু জায়গায় নতুন করে আবার শুরু হয়েছে লকডাউন ৷

পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার আবেদন করা হচ্ছে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় মাস্ক ব্যবহার করার জন্য এবং সামাদিক দূরত্ব বজায় রাখতে ৷

পঞ্চ পীঠের অন্যতম পীঠস্থান হল বক্রেশ্বর ৷ করোনার জেরে বক্রেশ্বর শিব মন্দিরের সেবাইতদের নিয়ে মিটিং করলেন দুবরাজপুর থানার ইন্সপেক্টর মাধব চন্দ্র মন্ডল ৷ বলাই ভাল যে প্রত্যেক বছর শ্রাবণ মাসে শিবের মাথায় জল ঢালতে হাজার হাজার ভক্তরা আসেন ৷ পশ্চিমবাংলা ছাড়াও বিহার, ঝাড়খণ্ড থেকেও বহু ভক্ত আসেন জল ঢালতে ৷ প্রত্যেক বছর যা ভক্ত আসে এবছরও ভক্তর সংখ্যা বেড়ে গেলে ছড়িয়ে পড়তে পারে করোনা ভাইরাস ৷ তাই সবদিক বিবেচনা করে সকলে একমত হয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শ্রাবণ মাসের প্রত্যেক সোমবার বক্রেশ্বরের শিব মন্দিরের দরজা ভক্তদের জন্য বন্ধ থাকবে ৷ ফলে ভক্তরা শিবের মাথায় জল ঢালতে পারবে না ৷

সেবাইতরা শুধুমাত্র নিয়ম মেনে পুজো করবে এবং ভোগ দেবেন ৷ শ্রাবণ মাসের সোমবারগুলি বাদ দিয়ে অন্যান্য দিনগুলি সরকারি নিয়ম মেনে মন্দিরের দরজা খোলা থাকবে যেখানে ভক্তরা পুজোও দিতে পারবে ৷ বক্রেশ্বর শিব মন্দিরের সেবায়েত শুভঙ্কর ভট্টাচার্য জানান ভক্তদের সুরক্ষার কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ৷ শ্রাবণ মাসের প্রত্যেক সোমবার মন্দিরের দরজা ভক্তদের জন্য বন্ধ থাকবে ৷ করোনার জেরে এ বছর শ্রাবণ মাসে শিবের মাথায় জল ঢালা যাবে না ৷ এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ৷ ফলে ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত এই মন্দিরে শিবরাত্রি পালন নিয়ে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: