corona virus btn
corona virus btn
Loading

গর্ভবতী সেজে হাসপাতালে মহিলা, ফাঁস শিশু চুরি চক্র !

গর্ভবতী সেজে হাসপাতালে মহিলা, ফাঁস শিশু চুরি চক্র !
বর্ধমান মেডিকেলে শিশু চুরির ঘটনাতেও নার্সিংহোম যোগ!

বিক্রির জন্য়ই বর্ধমান মেডিক্য়াল থেকে শিশু চুরি, জানাল পুলিশ

  • Share this:

#বর্ধমান: মোটা টাকায় বিক্রি করার জন্যই বর্ধমান মেডিকেল থেকে সদ্যোজাত শিশুকন্যা চুরি করেছিল দম্পতি। চুরির জন্যই গর্ভবতী সেজে হাসপাতালে ভর্তি ছিল মহিলা। চুরির পরই শিশুটিকে বিক্রির জন্য রায়না নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। আশানুরূপ দাম না মেলায় দুর্গাপুর ফেরে ধৃত দম্পতি।

ধৃতদের প্রাথমিক ভাবে জেরা করে নিশ্চিত পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। ধৃত দম্পতিকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করবে জেলা পুলিশ। জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন  শিশুপাচার কান্ডে একটি চক্র জড়িত  রয়েছে । সেই পাচার চক্রে আর কারা জড়িত, এর আগে এই দম্পতি অন্য কোনও শিশু চুরি করেছিল কিনা, করলে কোথায় তাদের বিক্রি করা হয়েছে তাও বিস্তারিত জানতে চাইছে পুলিশ।

রবিবার বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সুপার  স্পেশালিটি উইং অনাময় হাসপাতাল  থেকে রিমা মালিক নামে এক মহিলার সদ্যোজাত শিশুকন্যা চুরি হয়। সরকারি আর্থিক সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার নাম করে একরকম তাঁর কোল থেকে শিশুকন্যা নিয়ে চম্পট দেয় এক মহিলা।  চুরির ২৪ ঘন্টার মধ্যে ঘটনার কিনারা করে পুলিশ। দুর্গাপুর থেকে শিশুকন্যা চুরির অভিযোগে  এক মহিলা ও  তাঁর স্বামীকে আটক করা হয়। তাঁদের কাছেই পাওয়া যায় শিশুকন্যাটিকে। বর্ধমান মেডিকেল কলেজে মহিলার মেডিকেল টেস্টের পরই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃত মহিলার নাম মধুমিতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় বৈরাগ্য ওরফে পিংকি। তার স্বামীর নাম মনি বৈরাগ্য। শিশু চুরির সময় হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে এই দম্পতিকে চিহ্নিত করে পুলিশ।

জেরায় পুলিশ জেনেছে, শিশু চুরির পরিকল্পনা নিয়েই পিংকি নিজেকে গর্ভবতী সাজিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল 15 জানুয়ারি। সেদিন ভর্তি হয় রিমা মালিকও। রিমা শুক্রবার কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। রবিবার তাঁর ছুটি হয়। সেদিন নিজের ইচ্ছেয় ছুটি নেয় অভিযুক্ত পিংকি। এরপরই সে রিমাকে অনাময় হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে তার শিশুকন্যা নিয়ে চম্পট দেয়।

চুরির পরই ওই শিশুকন্যা বিক্রির জন্য রায়নায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। দর চাওয়া হয়েছিল দেড় লক্ষ টাকা। চাহিদা অনুযায়ী দাম না মেলায় শিশুকন্যাকে তারা দুর্গাপুরে তাদের ভাড়া বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা নেয়। বেনাচিতিতে বাস থেকে নামার সময় পুলিশের চোখে পড়ে যায় তারা। এরপরই গ্রেফতার করা হয় দম্পতিকে৷

Saradindu Ghosh

First published: January 21, 2020, 4:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर