Home /News /south-bengal /
কালী ও ধ্রুবর ঘরে এল ফুটফুটে সন্তান, বর্ধমানের মিনি জু-তে খুশির হাওয়া

কালী ও ধ্রুবর ঘরে এল ফুটফুটে সন্তান, বর্ধমানের মিনি জু-তে খুশির হাওয়া

Cheetah In Barhdman zoo; বর্ধমানের রমনাবাগান অভয়ারণ্যে এখন খুশির হাওয়া।

  • Share this:

#বর্ধমান: খুশির খবর বর্ধমান রমনাবাগান অভয়ারণ্যে। ফের চিতা শাবকের জন্ম হল এই মিনি জু-তে।

জানা গিয়েছে, ১১ অগাষ্ট রাখি পূর্ণিমার দিন এই শাবকের জন্ম হয়। তাকে এখন বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। চিকিৎসকরা নিয়মিত তার স্বাস্থ্যের প্রতি নজর রাখছেন।

সাধারণত তিন জন কর্মী চিতাগুলিকে দেখভাল করেন। এক্ষেত্রে একজন কর্মীই চিতা শাবকটির কাছে যাচ্ছেন। মিনি জু কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আপাতত শাবকটি মায়ের কাছেই থাকবে। পরে তা দর্শকদের সামনে আনা হবে।

আরও পড়ুন- ঋন করে টাকা দিয়েও চাকরি হয়নি স্ত্রীর, দিশাহীন স্বামী ঘটালেন ভয়ঙ্কর কাণ্ড

এই ঘটনাকে পুজোর আগে বর্ধমানবাসীর জন্য ফের আনন্দ সংবাদ বলাই যায়। এক বছর চার মাসের মাথায় ফের সন্তানের জন্ম দিল কালী। রাখি পূর্ণিমার পূণ্য লগ্নে গত ১১ অগাস্ট বর্ধমান রমনা বাগানে ধ্রুব ও কালীর দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম হল।

যদিও এই পাঁচ দিনে মা চিতাবাঘ কালীর ধারে কাছে কেউ ঘেঁষতে পারেননি। এমনকী খুব প্রয়োজন ছাড়া এনক্লোজারের ভেতর ঘরের বাইরে বেরোতেও সেভাবে দেখা যায়নি কালীকে।

রমনা বাগান জুলজিক্যাল পার্ক কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে, খাবার দেওয়ার সময়টুকু ছাড়া এই মুহূর্তে কারও এনক্লোজারের সামনে যাওয়া সম্পূর্ন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ২৪ঘণ্টার জন্য একজনকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

জেলা বন বিভাগীয় মুখ্য বনাধিকারিক নিশা গোস্বামী বলেছেন, ”গত বছর এপ্রিল মাসেও এর আগে একটি বাচ্চার জন্ম দিয়েছিল কালী। আমরা মা ও বাচ্চার দিকে সর্বক্ষণ নজর রাখার ব্যবস্থা নিয়েছি। পাশাপাশি পুরুষ চিতা ধ্রুবকে আলাদা এনক্লোজারে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। আগামী কিছুদিন ওদের নজরে রাখা হবে।”

আরও পড়ুন- পুরসভার আবর্জনা ফেলার জায়গা থেকে উদ্ধার ১৮ টি সদ্যোজাত শিশুর দেহ এবং বেশ কিছু ভ্রূণ, ঘটনায় চাঞ্চল্য উলুবেড়ি

বন বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, চিতা বাঘের বাচ্চা হলেও সেটি ছেলে না মেয়ে, এখনই বলা সম্ভব নয়। এর প্রধান কারণ মা চিতার কাছে এখন কারুর পক্ষেই যাওয়া সম্ভব নয়। বাচ্চাকে আঁকড়ে মা বেশিরভাগ সময় কাটাচ্ছে। বাইরেও খুব কম বেরোচ্ছে।

কমপক্ষে মাসখানেক শাবকের বয়স না হলে কিছুই বোঝা যাবে না। যদিও কালীর এর আগের শাবকের বয়স প্রায় দেড় বছর হতে চললেও কিছুদিন আগে পর্যন্তও বন দপ্তরের কর্মীরা সেই শাবক ছেলে না মেয়ে জানতে পারেননি।

সরকারিভাবে এখনও কালীর প্রথম সন্তানের নামকরণ করা যায়নি। বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি বন দপ্তরের পশু চিকিৎসক ও কর্মীদের একাংশ জানতে পেরেছেন প্রথম বাচ্চাটি পুরুষ। স্বাভাবিকভাবেই রমনা বাগান জুড়ে ছড়িয়েছে খুশির হাওয়া। এরই মাঝে রাখি পূর্ণিমার দিন ফের ধ্রুব আর কালীর দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম হওয়ায় গোটা রমনা বাগান জুড়ে ব্যস্ততা তুঙ্গে।

এতদিন বর্ধমান রমনা বাগান জুওলজিক্যাল পার্কের মুখ্য আকর্ষণ ছিল কালী ও ধ্রুব। এখন চিতার সংখ্যা বেড়েছে। চিতার পরিবারে এখন আরও দুজন সদস্য বেড়েছে। স্বাভাবিকভাবেই এদের বিচরণ ক্ষেত্রও বাড়াতে হচ্ছে। এছাড়াও এই বছরের মধ্যে রমনা বাগানের আকর্ষণ বাড়াতে আরও কিছু পশু-পাখি নিয়ে আসার বিষয়ে ভাবছে কর্তৃপক্ষ।

Published by:Suman Majumder
First published:

Tags: Bardhaman news, Cheetah

পরবর্তী খবর