দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুলিশের ফাঁদ, শ্বশুরবাড়িতে এসে ধরা পড়ল প্রতারক জামাই

পুলিশের ফাঁদ, শ্বশুরবাড়িতে এসে ধরা পড়ল প্রতারক জামাই
ধৃত জামাই৷
  • Share this:

#সালার: শ্বশুরবাড়িতে এসে মানুষকে সাহায্য করার নাম করে এটিএম কার্ড প্রতারণা দেদার টাকা তুলছিল জামাই। শেষ পর্যন্ত পুলিশের জালে ধরা পরল অভিযুক্ত শামিম লস্কর। ভরতপুর ও সালার থানায় একাধিক অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর পুলিশ তদন্তে নেমে শামিম লস্করকে গ্রেপ্তার করে। তার কাছ থেকে কিছু টাকা উদ্ধার হয়।

জেলা পুলিশ সুপার কে সাবেরী রাজকুমার বলেন, মানুষকে সাহায্য করার নাম করে বৃদ্ধ ও মহিলাদের এটিএম কার্ড নিয়ে অল্প সময়ের মধ্যেই হাতসাফাই করে কার্ড বদলে দিত শামিম । তার পরেই আসল কার্ড দিয়ে টাকা তুলত অভিযুক্ত। ধৃত অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছে বলেও দাবি পুলিশের। এই ঘটনার সঙ্গে আর কেউ জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

পুলিশ সুপার জানান, কিছু টাকা উদ্ধার হয়েছে। সেই টাকা মালিকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।শামিম লস্কর লকডাউনের  সময় বেশ কিছুদিন শ্বশুরবাড়িতে এসে ছিল। সেই সময় সালার ও ভরতপুরে  কয়েকজনের কাছ থেকে এটিএম কার্ড হাতিয়ে  নেয় সে। এর পরই তিনটি অভিযোগ দায়ের হয় সালার থানাতে।মোট  দু'লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা তুলে নিয়েছিল অভিযুক্ত। অভিযোগ পাওয়ার পরেই তদন্তকারী অফিসার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে অভিযুক্তকে চিহ্নিত করে। এরপরই শ্বশুর বাড়ির লোককে দিয়ে ফোন করিয়ে জামাইকে ডাকা হয়। জামাই শ্বশুরবাড়িতে আসতেই পুলিশের হাতে ধরা পড়ে।

অভিযোগকারী করবী ইয়াসমিন বলেন, 'আমার দিদির ছেলে অসুস্থ বলে টাকা তোলার জন্য এটিএম এ  গিয়েছিলাম। আমাকে সাহায্য করার জন্য ওই যুবক ভিতরে ঢোকে। আমি  অবিশ্বাস করিনি। তার পরেই দেখি টাকা ওঠেনি। পরে বাড়িতে ফিরে এলে ফোনে মেসেজ আসে আমার অ্যাকাউন্ট থেকে ৪০ হাজার টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে।' একই অভিযোগ শুকরানা বেগমের । তিনি বলেন, 'আমার অ্যাকাউন্ট থেকে ৬০ হাজার টাকা তুলে নেয় বলে জানায় ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। এর পরই আমরা সালার থানায় অভিযোগ দায়ের করি।  ব্য়াঙ্ক কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশ । তার পরেই সেই ফুটেজ থেকে  চিহ্নিত করে।'

Pranab Kumar Banerjee

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 24, 2020, 8:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर