জলসা দেখার অনুমতি দেয়নি স্বামী, সালিশি সভায় তুলকালাম! শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের বেধড়ক মারধর!

জলসা দেখার অনুমতি দেয়নি স্বামী, সালিশি সভায় তুলকালাম! শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের বেধড়ক মারধর!

শ্বশুরবাড়ির পাশে জলসা দেখা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ মেটাতে গ্রাম্য সালিশি সভায় তুলকালা। সংঘর্ষে মহিলা-সহ গুরুতর জখম ৫ জন, গ্রেফতার অভিযুক্ত মেয়ের পক্ষের ৬ জন।

শ্বশুরবাড়ির পাশে জলসা দেখা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ মেটাতে গ্রাম্য সালিশি সভায় তুলকালা। সংঘর্ষে মহিলা-সহ গুরুতর জখম ৫ জন, গ্রেফতার অভিযুক্ত মেয়ের পক্ষের ৬ জন।

  • Share this:

#বহরমপুর: শ্বশুরবাড়ির পাশে জলসা দেখা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ মেটাতে গ্রাম্য সালিশি সভায় তুলকালা। সংঘর্ষে মহিলা-সহ গুরুতর জখম ৫ জন,  গ্রেফতার অভিযুক্ত মেয়ের পক্ষের ৬ জন। শুক্রবার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে হরিহরপাড়া থানার লোচনমাটি ডাঙ্গাপাড়া এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। পরবর্তীতে থানার বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। সংঘর্ষে জখম  হওয়া সকলকেই হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা করার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ।

ঘটনার সূত্রপাত সামান্য জালসা দেখতে যাওয়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর বিবাদ কেন্দ্র করেই। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ৪ বছর আগে নওদা থানার মধুপুর ডাঙ্গাপাড়ার বাসিন্দা মূক ও বধির সেলিনা বিবির সঙ্গে সামাজিকভাবে বিয়ে হয় হরিহরপাড়া লোচনমাটি ডাঙ্গাপাড়ার লাল মোহাম্মদ শেখের। বর্তমানে তাঁদের একটি সন্তানও রয়েছে। অভিযোগ, মূক ও বধির হওয়ায় সেলিনার সঙ্গে মাঝে মধ্যেই তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনের টুকিটাকি ঝামেলা লেগেই থাকত। এই পর্যন্ত সব ঠিক থাকলেও বৃহস্পতিবার সেলিনার শ্বশুরবাড়ির পাশের গ্রাম খলিলাবাদে একটি জালসা অনুষ্ঠান দেখতে যাওয়াকে কেন্দ্র করে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝামেলা শুরু হয়। অভিযোগ, স্ত্রীকে ওই জলসা অনুষ্ঠান দেখার অনুমতি না দিলে স্বামী লাল মোহাম্মদ শেখের সঙ্গে সেলিনার মনোমালিন্য চরমে পৌঁছায়। আর এই খবর গিয়ে কোনওভাবে পৌঁছয় সেলিনার বাপের বাড়িতে। মেয়েকে জামাই ও তার বাড়ির লোকজনের জালসা দেখতে যাওয়ার অনুমতি না দেওয়ার ঘটনায় রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয় বাপের বাড়ির সদস্যরা।

এ দিন উভয় পরিবারের এই মনোমালিন্য দূর করতে একটি গ্রামীণ ঘরোয়া সালিশি সভার আয়োজন করা হয়। অভিযোগ, সেলিনার পরিবারের লোকজন দলবেঁধে বাইক ও গাড়িতে করে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ওই সালিশি সভায় হাজির হয় সেলিনার শ্বশুরবাড়ির লোকেদের শায়েস্তা করতে। সেখানে মুহুর্তের মধ্যে উভয়পক্ষের  কথাকাটাকাটি থেকে সংঘর্ষ শুরু হয়ে যায়। তারপরেই লাল মোহাম্মদ শেখের  পরিবারের ২ মহিলা-সহ ৫ জন গুরুতর ভাবে জখম হয় সেলিনার শ্বশুরবাড়ির লোকজনের হাতে। তাঁদের তড়িঘড়ি উদ্ধার করে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় হরিহারপাড়া ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে।

এ দিকে ঘটনার পরই লাল মোহাম্মদের বাবা আলিমউদ্দিন শেখ ছেলের স্ত্রীর শ্বশুরবাড়ি ৬ জনের নামে হরিহরপাড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। পুলিশ তদন্তে নেমে মূল অভিযুক্ত কাবেজুল শেখ-সহ বাপন সেখ, ছোটন শেখ, গোলাম শেখ-সহ বাকিদের গ্রেফতার করে। ছেলের বাবা  আলিমউদ্দিন শেখ বলেন, "আমার বৌমার বাড়ির লোকজন এ দিন আমাদের বাড়িতে সালিশির নামে  হামলা চালায়।

Pranab Kumar Banerjee

Published by:Shubhagata Dey
First published:

লেটেস্ট খবর