corona virus btn
corona virus btn
Loading

বারবার আবেদন করেছে বাংলা তবুও পরিযায়ীদের রাজ্যে ফেরাতে নারাজ, বীরভূমে আটকে আছেন শ্রমিকরা

বারবার আবেদন করেছে বাংলা তবুও পরিযায়ীদের রাজ্যে ফেরাতে নারাজ, বীরভূমে আটকে আছেন শ্রমিকরা

পরিযায়ী শ্রমিকদের যত্নে রেখেছেন জেলা প্রশাসকরা

  • Share this:

#গুয়াহাটি: অসম সরকারের অনুমতি নেই অসমে ঢোকার,  দীর্ঘদিন ধরে বীরভূমে আসামের পরিযায়ী শ্রমিকরা৷ ১৮ জনের একটা পরিযায়ী শ্রমিকের দল মধ্যপ্রদেশ থেকে অসম যাওয়ার সময় তাদের পথে আটকায় বীরভূমের দুবরাজপুর থানার পুলিশ৷

তারপর তাদের দুবরাজপুরের হেতমপুর রিলিফ সেন্টারে রাখা হয়৷ ১৮ জনই সুস্থ আছেন, কিন্তু বাড়ি যাওয়ার বাধ সেধেছে তাদেরই অসম সরকারের৷  বারবার বীরভূম জেলা প্রশাসন ও পশ্চিমবঙ্গ সরকার অসম সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে চলেছে, কিন্তু কোনো সদুত্তর এখনো পর্যন্ত আসেনি৷ ফলে আপাতত বাড়ি ফিরতে পারছেন না অসমের এই পরিযায়ী শ্রমিক৷ ফলে তাদের ঠিকানা এখন বীরভূমের দুবরাজপুরের হেতমপুর রিলিফ সেন্টারে৷  জানা গিয়েছে বর্তমানে কাজ হারিয়ে মধ্যপ্রদেশ থেকে কখনো পায়ে হেঁটে আবার কখনো  লরিতে করে তারা আসামের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়৷ বীরভূমের দুবরাজপুর থানার পুলিশ ১৮ জনকে জাতীয় সড়কে হাঁটতে দেখে তাদেরকে আটক করে ও রিলিফ সেন্টারে রাখে৷ দুবরাজপুরে বিডিও অনিরুদ্ধ রায় জানান, জেলা প্রশাসন ও পশ্চিমবঙ্গের সরকার অসম সরকারের সঙ্গে বারবার আলোচনা করা হলেও কোনো  ইতিবাচক সাড়া না পাওয়ায় তাদেরকে পাঠাতে পারছেন না৷ অসম সরকারের সাড়া পেলেই ১৮ জন পরিযায়ী শ্রমিককে পৌঁছে দেওয়া হবে তাদের বাড়িতে৷ সরকারি ব্যবস্থাপনায় বাস, টিফিন, রুট সবই ঠিক করা আছে৷ সাড়া পেলেই তাদের নির্দিষ্ট গন্তব্যস্থলে পৌঁছে দেওয়া হবে৷ পশ্চিমবঙ্গের সরকার মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে বিষয়টা দেখছে৷  কারণ পথে যেতে যেতে কত রকম বিপদ ঘটছে, সেটা যাতে না ঘটে সে জন্যই অপেক্ষা করছি আসাম সরকারের অনুমতির জন্য, অনুমতি পেলে তাদের বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হবে। প্রত্যেক দিনই তাদের শারীরিক পরীক্ষা করা হচ্ছে এবং তারা যাতে মানসিকভাবে ভেঙে না পড়ে সেজন্য কাউন্সিলিং করা হচ্ছে৷ বীরভূমের দুবরাজপুর থানার পুলিশ সর্বদা তাদের ওপর নজর রেখে চলেছে৷  তাদের যাতে কোন অসুবিধা না হয় সেদিকেও তারা দেখছেন৷

Supratim Das

Published by: Debalina Datta
First published: May 25, 2020, 8:39 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर