পুকুরে মাছ ছাড়াকে কেন্দ্রকরে গুরুতর আহত এক,অগ্নিগর্ভ অশোকনগরের কামারপুর এলাকা

উওর চব্বিশ পরগনার অশোকনগর থানার কামারপুর এলাকার খালধার পাড়ার ওসমান মন্ডলের লিজ নেওয়া পুকুরের হাঁফাতে

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 01, 2017 12:09 PM IST
পুকুরে মাছ ছাড়াকে কেন্দ্রকরে গুরুতর আহত এক,অগ্নিগর্ভ অশোকনগরের কামারপুর এলাকা
File Photo
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:May 01, 2017 12:09 PM IST

#অশোকনগর: উওর চব্বিশ পরগনার অশোকনগর থানার কামারপুর এলাকার খালধার পাড়ার ওসমান মন্ডলের লিজ নেওয়া পুকুরের হাঁফাতে মাছ ছাড়াকে কেন্দ্রকরে তার সহযোগি মোন্তাজুল গাজীর সাথে বতসায় জরিয়ে পরেন।

স্থানীয় সূত্রেই খবর অনুযায়ী,ওসমানের পুকুরে মোন্তাজুল হাঁফায় মাছের চাষ করেন কিন্তু হটাৎ হাঁফার নেটজাল ছিরে কিছু মাছ পুকুরে চলে যায় এই নিয়ে বেশকিছুদিন দুজনের মধ্যে ঝামেলা। শনিবার বিকেলে স্থানীয় বাসিন্দারা দুজনে একসাথে বসিয়ে মিমাংশা করেন যে মোম্তাজুল ৫ হাজার টাকা ওসমানকে দেবেন আর পুকুর থেকে সমস্ত মাছ তুলে নেবেন।সেই মতো রবিবার সকালে মাছ ধরবার জন্য ওসমানের সকল ভাই সহ মোস্তাজুল গাজী পুকুর পারে যান দুজনের মধ্যে কথার কাটাকাটি শুরু হতেই হটাৎ ওসমান মন্ডলের হাতে থাকা লোহার ধারালো হাসুয়া দিয়ে প্রথমে সজোরে মোন্তাজুলের মাথায় কোপ মারে নিজেকে বাঁচাতে মাথা চেপে ধরতেই ঘারে পুনরায় কোপ মারেন। চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে আশতেই ওসমান সহ অর চার ভাই নজু মন্ডল,মমিন মন্ডল,সোলেমান মন্ডল,পিন্টু মন্ডল পালিয়ে যান।

তরিঘরি স্থানীয়রা ওসমানকে প্রথমে অশোকনগর হাসপাতালে পরে বারাসাত হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। উওেজিত গ্রামবাসিরা ওসমান সহ তার ভাই ও আত্মীয়দের বাড়িতে ও তিনটি সেলাই এর রেডিমেট কারখানায় আগুন লাগিয়ে দেন। ঘটনাস্থলে আশোকনগর থানা ও আমডাঙ্গা থানার বিশাল পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে ।

আগুন নেভাতে ফায়ার বিগ্রেডএর দুটো ইঞ্জিনের তৎপরতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।স্থানীয় বাসিন্দা আমিনুর মন্ডল বলেন,মোন্তাজুল ভালো ছেলে পেশায় একটি লোকাল এম্বুলেন্স ড্রাইভার পাশাপাশি মাছের ব্যবসা করেন। পুড়িয়ে দেওয়া হয় ৭ টি বাড়ি,৩ টি সেলাই কারখানা,মহিলাদের শাড়িতে বসানো অসংখ্য হাতের কাজের সামগ্রি, পাট, মোটরবাইক। এলাকায় ব্যপক উওেজনা,চলছে পুলিশি টহল দাড়ি। ঘটনার তদন্তে আশোকনগর থানার পুলিশ।

First published: 08:27:30 PM Apr 30, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर