corona virus btn
corona virus btn
Loading

শতাব্দী প্রাচীন মন্দির থেকে মা চন্ডীর মূর্তি চুরি, উদ্ধারের দাবিতে কী করলেন বাসিন্দা!

শতাব্দী প্রাচীন মন্দির থেকে মা চন্ডীর মূর্তি চুরি, উদ্ধারের দাবিতে কী করলেন বাসিন্দা!

জঙ্গলে ঘেরা এলাকায় বহু প্রত্নতাত্বিক নিদর্শন রয়েছে। অনেক মন্দিরেই বহু প্রাচীন প্রস্তর মূর্তি রয়েছে, যেগুলির মূল্য অপরিসীম।

  • Share this:

#আউশগ্রাম: চুরি গিয়েছে গ্রামের কুলদেবী চন্ডী মাতার মূর্তি। সবার অলক্ষ্যে কে বা কারা সেই পাথরের মূর্তি নিয়ে চম্পট দিয়েছে। তা জানাজানি হতেই অবিলম্বে সেই চুরি যাওয়া মূর্তি উদ্ধারের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করে রাখলেন গ্রামবাসীরা। পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রাম দু নম্বর ব্লকের রামনগর অঞ্চলের ছোড়া কলোনি এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে।

জঙ্গল ঘেরা আউশগ্রাম। গাছ গাছালিতে ঘেরা শান্ত জনপদ ছোড়া। এখানেই চন্ডীমাতার মূর্তি বহু প্রাচীন কাল থেকে পুজো হয়ে আসছে। গ্রামের কুলদেবী বলা হয় এই মা চন্ডীকে। নিত্যপুজো হয়। আশপাশের জঙ্গলে ঘেরা বিভিন্ন গ্রাম থেকেও বাসিন্দারা পুজো দিতে আসেন। সেই মন্দির থেকেই হটাৎ মায়ের বিগ্রহ উধাও! মেনে নিতে পারেননি বাসিন্দারা। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে এই মূর্তি উদ্ধারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিক পুলিশ। মা চন্ডীর মূর্তি ফেরানোর দাবিতে রাস্তা অবরোধ করেন তাঁরা। ছোড়া মোড়ে অবরোধ হওয়ায় ইলামবাজার, গুসকরা ও ভেদিয়া মানকর রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। বিপাকে পড়েন গাড়ি চালক ও যাত্রীরা। গ্রামবাসীদের দাবি, স্হানীয় প্রশাসনের আশ্বাসে নয়, জেলা শাসক বা জেলা পুলিশ সুপার এসে মূর্তি উদ্ধারের প্রতিশ্রুতি দিলে তবেই অবরোধ উঠবে।

প্রতিদিন অনেকেই স্নান সেরে মায়ের মন্দিরে প্রণাম করে দৈনন্দিন কাজ শুরু করেন। তাঁদেরই একজন প্রণাম করতে গিয়ে দেখেন মায়ের বিগ্রহ নেই। সেকথা চাউর হতেই মন্দিরের সামনে ভিড় করেন গ্রামবাসীরা। খবর পেয়ে আউশগ্রাম থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এরপর থেকেই চুরি যাওয়া প্রাচীন প্রস্তর মূর্তি উদ্ধারের দাবিতে পথ অবরোধ শুরু করেন তাঁরা।

এলাকার বাসিন্দারা বলেন, আউশগ্রামের জঙ্গল মহল প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শনের ভান্ডার বলা হয়। অনেক মন্দিরেই বহু প্রাচীন প্রস্তর মূর্তি রয়েছে। সে সবের মূল্য অপরিসীম। সেই কারণে এই সব মূর্তি চুরি চক্র সক্রিয়। সেই চক্রই এই মূর্তি চুরি করে থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই মূর্তি উদ্ধারের সব রকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে। কে বা কারা মূর্তিটি নিয়ে গিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আউশগ্রাম থেকে বাইরে যাওয়ার সব রাস্তাতেই তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Shubhagata Dey
First published: July 11, 2020, 5:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर