Home /News /south-bengal /
Bengali News: ইতিহাস গবেষণার কাজে দিয়ে দিলেন নিজের বাড়িটাই! মেদিনীপুরের অন্নপূর্ণা যেন উদাহরণ

Bengali News: ইতিহাস গবেষণার কাজে দিয়ে দিলেন নিজের বাড়িটাই! মেদিনীপুরের অন্নপূর্ণা যেন উদাহরণ

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

Bengali News: বর্তমানে তিনি এশিয়াটিক সোসাইটির রিসার্চ ফেলো। বয়স ৯১ বছর ।

  • Share this:

    #মেদিনীপুর: পড়াশোনার আকর্ষণ তাঁকে কখনই ছাড়েনি। সম্পত্তি, আয়, অর্থ, কিছুই বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি তাঁর আর পড়াশোনার প্রতি আগ্রহের মাঝে। সেই অভ্যাসের ফলশ্রুতিই দেখা গেল মেদিনীপুর কলেজের প্রাক্তনী ও ইতিহাস গবেষক ডক্টর অন্নপূর্ণা চট্টোপাধ্যায়ের সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তে। তিনি কলেজকে ইতিহাস গবেষণার কাজের জন্য দান করে দিলেন তাঁর গোটা বাড়িটিই। হ্যাঁ, অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি।

    ইতিহাস চর্চা ও গবেষণায় অসামান্য সাফল্যের জন্য তিনি এবছরই এশিয়াটিক সোসাইটির আরপি চন্দ্র স্মৃতি পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর ইতিহাসের প্রতি আগ্রহ মুগ্ধ করেছে সুধীজনদের। সেই অন্নপূর্ণা শনিবার মেদিনীপুর কলেজের অধক্ষ্য ডক্টর গোপালচন্দ্র বেরার হাতে ইউল করা দলিল তুলে দিলেন। তিনি নিজেও অধ্যাপনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। মেদিনীপুর কলেজের এই প্রাক্তন ছাত্রী আপাতত অধ্যাপনা করেছেন মেদিনীপুর গোপ (মহিলা) কলেজে।

    আরও পড়ুন: স্ত্রী কথায়-কথায় সন্দেহ করে! রাগে-দুঃখে মেয়েকে গলায় ফাঁস দিয়ে সেই দড়িতেই ঝুললেন পুলিশকর্মী

    বর্তমানে তিনি এশিয়াটিক সোসাইটির রিসার্চ ফেলো। বয়স ৯১ বছর । ইতিহাস চর্চায় ডুবে থাকার ফলে তাঁর আর সংসার জীবনে প্রবেশ করা হয়নি। শনিবার কলেজে এসে জানালেন আগে একই বাড়িতে যৌথ পরিবারে থাকতেন । তাঁর বইপত্র , গবেষণা সংক্রান্ত কাগজ , পাণ্ডুলিপি , পুরাতন সব দলিল দস্তাবেজে কয়েকটি ঘর ভরে উঠেছিল। এ  জন্য মেদিনীপুরের ক্ষুদিরাম নগরে মাইকো লেনে একটি দোতলা বাড়ি নির্মাণ করেন । ১৯৯৮ সাল থেকে সেখানেই একা থাকেন। ২ জন সর্বক্ষণের পরিচারিকা আছেন। তাঁরাই তাঁর দেখভাল করেন। সম্প্রতি কলেজের ১৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর সময়ই তিনি কলেজকে এই প্রস্তাব দেন। কলেজের অধ্যক্ষ ড. গোপাল চন্দ্র বেরা জানান , ইতিহাস নিয়ে তিনি এখনও লেখালেখি করছেন ।

    Sovon Das

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Bengali News

    পরবর্তী খবর