একটি বিনোদন পার্ক ঘিরে স্বপ্ন বুনছে গোটা গ্রাম!

প্রতীকী ছবি

বছর কয়েক আগে বাগানবাড়ি তৈরি করতে জমি কিনেছিলেন স্থানীয় এক উদ্যোগপতি। সখের সেই বাগানবাড়ি এখন জনপ্রিয় বিনোদন পার্ক।

  • Share this:

    #বনগাঁ: একটা বিনোদন পার্ক। বদলে দিচ্ছে গ্রামের সামগ্রিক অর্থনীতির ছবিটা। কাজের সুযোগের সঙ্গেই বাড়ছে জমির দাম। মুখে মুখে গ্রামের পরিচিতি। উত্তর চব্বিশ পরগনার বিড়ার বিনোদন পার্ক ঘিরে স্বপ্ন বুনছে রাউতারা গ্রাম। গতকাল এখানেই চালু হল ওয়াটার পার্ক।

    বছর কয়েক আগে বাগানবাড়ি তৈরি করতে জমি কিনেছিলেন স্থানীয় এক উদ্যোগপতি। সখের সেই বাগানবাড়ি এখন জনপ্রিয় বিনোদন পার্ক। চার বছর আগে উত্তর চব্বিপরগনার বিড়ার রাউতারা গ্রামে চালু হয় পার্ক। এ ক’বছরেই প্রান্তিক কৃষিপ্রধান গ্রামের খোলনোলচে বদলে দিয়েছে এই পার্ক। বিড়া চৌমাথা থেকে পূর্বদিকে চার কিলোমিটার যাওয়ার পর গ্রামের সরু গলির শেষমাথায় বিনোদন পার্ক

    রবিবার এখানেই শুরু হল ওয়াটারপার্ক। বারাসত থেকে বনগাঁর মাঝে জলকেলির এমন ব্যবস্থা আর কোথাও নেই। গ্রামের মধ্যে বেসরকারি উদ্যোগে বিনোদন ও ওয়াটারপার্ক রাজ্যের গ্রামীণ অর্থনীতিতে নতুন দিশা দেখাচ্ছে।

    প্রথমদিকে কেউ বিনোদন পার্কে আসতে চাইতেন না। ক্রমে প্রচার বাড়ে। এবছর শীতে উপচে পড়ে ভিড়। লাভের মুখ দেখছেন টোটোচালক থেকে ছোট ব্যবসায়ীরা। বাড়ছে জমির দামও। দশ বছর আগেও কাঠা প্রতি জমির দাম ছিল দশ হাজার টাকা৷ বর্তমানে কাঠা প্রতি জমির দাম দশ লাখ টাকা ৷ সেই টাকা দিয়েও জমি পাওয়া যাচ্ছে না৷ সরু রাস্তায় প্রতিদিন এত মানুষের ভিড়ে গ্রামের শান্ত জীবনে ছন্দপতন ঘটছে। তবু আর্থিক উন্নতির কথা ভেবে ধৈর্যশীল রাউতারা।

    Published by:Pooja Basu
    First published: