corona virus btn
corona virus btn
Loading

লক ডাউনের মাঝেই মা দুর্গার অকালবোধন পূর্ব বর্ধমানে

লক ডাউনের মাঝেই মা দুর্গার অকালবোধন পূর্ব বর্ধমানে

লকডাউনের মাঝেই মা দুর্গার অকালবোধন হল পূর্ব বর্ধমানের নসরতপুরের তাঁতীপাড়ায়

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: লকডাউনের মাঝেই মা দুর্গার অকালবোধন হল পূর্ব বর্ধমানের নসরতপুরের তাঁতীপাড়ায়। লকডাউনের জেরে মার্চ মাসে  দুর্গাপুজো স্থগিত রাখা হলেও অবশেষে শুরু হল সেই পুজো। মা এসেছেন সপরিবারে। কার্তিক, গণেশ, লক্ষ্মী সরস্বতী, মহিষাসুর সকলেই আছেন। ঢাক-কাঁসরঘণ্টা বাজিয়ে চলছে পুজো। শনিবার সামাজিক দূরত্ব মেনে প্রতিমা দর্শন করলেন গ্রামবাসীরা। পুজোর ভোগ প্রসাদও পেলেন সকলে। অনেকে এদিন বাড়িতে বসেই অনলাইনে সোশ্যাল মিডিয়ায় পুজো দেখলেন।

নসরৎপুর মধ্যপাড়ার কানাই বসাক ১২ বছর আগে বাড়িতে বাসন্তী পুজো শুরু করেছিলেন। ওই গ্রামে এই একটাই বাসন্তী পুজো হয়। দেড় দু হাজার আমন্ত্রিত পাত পেড়ে ভোগ প্রসাদ খেয়ে থাকেন। তাছাড়া গ্রামের একমাত্র বাসন্ত্রী পুজো দেখাতে প্রচুর দর্শনার্থী আসেন। কিন্তু এবার করোনা আবহে সেই পুজো স্থগিত রাখা হয়েছিল। মৃৎশিল্পীরা কানাইবাবুর বাড়িতে এসে প্রতিমা গড়েন। গত ১২ মার্চ বাড়িতেই প্রতিমা তৈরি হয়। উঠানের একটি চালাঘরে রাখা ছিল প্রতিমা। এবছর ৩১ মার্চ বাসন্তী পুজো শুরুর কথা ছিল। সেই মতো আত্মীয়, বন্ধু বান্ধব, পাড়া প্রতিবেশীদের নিমন্ত্রণ করা হয়ে যায়। কিন্তু গত ২২ মার্চ লকডাউন ঘোষনা হয়। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশিকা জারি হয়। এই পরিস্থিতে স্থগির রাখা হয় বাড়ির বাসন্তী পুজো।

এদিকে ঝড় বৃষ্টিতে বাড়ির উঠানের চালাঘরে থাকা প্রতিমাটি নষ্ট হতে শুরু করে। অতএব তৈরি হয়ে যাওয়া প্রতিমা পুজো করার সিদ্ধান্ত নেন পরিবারের সদস্যরা। এরপর পুরোহিতরা বিভিন্ন পাঁজি পুঁথি ঘেটে চলতি মাসের আমাবস্যার পর সপ্তমী থেকে পুজো করার বিধান দেন। কানাই বসাক বলেন, '' বাড়ির কুল পুরোহিত রাসু চক্রবর্তী বিধান দেওয়ার পর ফের বাসন্তী পুজোর আয়োজন শুরু হয়। তবে এবার শুধু নিয়মটাই মানা হচ্ছে। আত্মীয় স্বজন পরিচিতদের আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। ভোগ খাওয়ানোর পর্বও এবার বন্ধ রাখা হয়েছে।''

SARADINDU GHOSH

Published by: Rukmini Mazumder
First published: May 31, 2020, 8:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर