• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • Abhishek Banerjee: তৃণমূলে ফিরলেও প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে, দলত্যাগীদের নিয়ে কড়া অবস্থান অভিষেকের

Abhishek Banerjee: তৃণমূলে ফিরলেও প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে, দলত্যাগীদের নিয়ে কড়া অবস্থান অভিষেকের

খড়দহের সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷

খড়দহের সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷

  • Share this:

#খড়দহ: যাঁরা বিজেপি-তে যাওয়ার জন্য দল ছেড়েছিলেন, তাঁরা ফিরে আসলেও প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে৷ এ দিন উপনির্বাচনের প্রচারে খড়দহ ও গোসাবার জনসভা থেকে এমনই দাবি করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)৷ দলের সাধারণ কর্মীদেরই যে সবথেকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও তিনি সেই অনুরোধ করেছেন বলে জানিয়েছেন তৃণমূলের (TMC) সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক৷

বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার হিড়িক লেগেছিল নেতাদের মধ্যে৷ তাঁদের মধ্যে অধিকাংশই এখন ঘাসফুল শিবিরে ফিরে আসতে মরিয়া৷ যদিও দলত্যাগীদের ফিরিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে এখন অনেক সতর্ক তৃণমূল৷ মুকুল রায়, শুভ্রাংশু রায়, সব্যসাচী দত্ত ছাড়াও বেশ কয়েকজন বিজেপি বিধায়ক ইতিমধ্যেই তৃণমূলে ফিরেছেন৷ কিন্তু রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো অনেকেই এখনও অপেক্ষায় রয়েছেন৷ এমন কি, বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন আসানসোলের প্রাক্তন সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়ও (Babul Supriyo)৷

আরও পড়ুন: ত্রিপুরা, গোয়ার পর তৃণমূলের টার্গেট আর কোন রাজ্য? বড় পরিকল্পনা জানালেন অভিষেক

এ দিন খড়দহের সভা থেকে বিজেপি এবং তৃণমূলের পার্থক্য টানতে গিয়ে অভিষেক প্রথমে দিনহাটা এবং শান্তিপুর কেন্দ্রের উদাহরণ দেন৷ ওই দুই কেন্দ্রেই জয়ী হয়েছিল বিজেপি৷ কিন্তু সাংসদ থাকবেন বলে বিধায়ক পদে ইস্তফা দেন নিশীথ প্রামাণিক ও জগন্নাথ সরকার৷ পরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হন নিশীথ প্রামাণিক৷ সেই উদাহরণ দিয়ে অভিষেক বলেন, 'একদিকে তৃণমূলের জয়ী বিধায়করা মানুষের জন্য কাজ করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন৷ অন্যদিকে বিজেপি-র জয়ী বিধায়করা মানুষের ভাবাবেগ ও জনমতকে গুরুত্ব না দিয়ে নিজেদের লালসা চরিতার্থ করতে মন্ত্রী হওয়ার জন্য ইস্তফা দিচ্ছেন৷ এটাই তৃণমূল এবং বিজেপি-র মধ্যে পার্থক্য৷' প্রসঙ্গত খড়দহ কেন্দ্রে ভোটে জিতলেও ফল বেরনোর আগেই করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন তৃণমূলের জয়ী প্রার্থী কাজল সিনহা৷ অন্যদিকে গোসাবার বিধায়ক জয়ন্ত নস্করও ফল ঘোষণার কিছুদিন পরই করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান৷

এর পাশাপাশি দলত্যাগীদের নিয়েও এ দিন মুখ খুলেছেন অভিষেক৷ যাঁরা দল ছেড়েছেন তাঁদের ফিরিয়ে নেওয়া হলেও যে প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে, সেকথা মনে করিয়ে দিয়েছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক৷ দলত্যাগীদের ফেরানো নিয়ে তৃণমূল যে কঠোর অবস্থানই বজায় রাখবে, তা স্পষ্ট করে দিয়ে অভিষেক বলেন, বিজেপি-র গদ্দারদের দলে ঢুকতে দেব না। আর যে দু' একজন ফিরে এসেছে, তাঁদের দিয়ে প্রায়শ্চিত্ত করাচ্ছি। নেত্রীর পা ধরে বলেছি, কর্মীদের মতামতকেই মান্যতা দিতে হবে।'

খড়দহ এবং গোসাবার দুই সভা থেকেই এ দিন বিজেপি-কে তীব্র আক্রমণ করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পাশাপাশি নিশানা করেছেন সিপিএম এবং কংগ্রেসকেও৷ অভিষেক বলেন, দেশের ১৭০০ রাজনৈতিক দলের মধ্যে একমাত্র তৃণমূলই বুক চিতিয়ে বিজেপি-র বিরুদ্ধে লড়াই করার হিম্মত দেখিয়েছে৷ ২০২৪-এ দিল্লিতে বিজেপি-কে তৃণমূল ক্ষমতাচ্যুত করে দেখাবেই বলে দাবি করেন অভিষেক৷ একই সঙ্গে তাঁর দাবি, তিন মাসের মধ্যে গোয়াতেও ক্ষমতা দখল করবে তৃণমূল৷ আগামী তিন মাসের মধ্যে তৃণমূল আরও পাঁচটি রাজ্যে পা রাখবে বলেও জানিয়ে দিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: